গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সরকার রাষ্ট্রীয় শক্তি ব্যবহার করছে

0
93
Rijbi_Briffing
বিএনপির সংবাদ সম্মেলন
Rijb
বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

জনগনের গণতান্ত্রিক আন্দোলন সরকার রাষ্ট্রীয় শক্তি ব্যবহার করে দমনের চেষ্টা করছে বলে সরকারের প্রতি অভিযোগ করলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বুধবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনস্থ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে  তিনি এ অভিযোগ করেন।
রিজভী বলেন, সারাদেশের মানুষ স্বতস্ফূর্ত ভাবে অবরোধ কর্মসূচী পালন করছে। জনগণের এই গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সরকার রাষ্ট্রীয় শক্তি ব্যাবহার করে দমনের চেষ্টা চালাচ্ছে। নির্যাতন-নিপীড়ন চালিয়ে হত্যা করে জনগণের এ আন্দোলন আপনারা বন্ধ করতে পারবেনা। আপনাদের কঠিন পরাজয় হবে।রাষ্ট্রীয় যন্ত্রের সর্বশক্তি দিয়েও এ আন্দোলন ঠেকানো যাবেনা এমন দাবি করে তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ অবরোধ কর্মসূচিতে সরকারের নিদের্শে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নির্বিচারে গুলি চালাচ্ছে। অবরোধ কর্মসূচি দমন করতে সরকার রাষ্ট্রীয় শক্তি প্রয়োগ করে বিএনপির শীর্ষ  নেতাদের বাসায় তল্লাশির নামে তাদের পরিবারকে হয়রাণি করছে। একই সাথে নেতা-কর্মীদের মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। এসব করেও আপনারা পার পাবেননা।সুশীল সমাজ  গতকাল রাতে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে স্বাক্ষাৎ করেছেন এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা মনে করি, আমরা আশাবাদী এর মধ্যে দিয়ে দেশের রাজনৈতিক সংকট কেটে যাবে। সহিংসতা ও নৈরাজ্য থেকে বের হয়ে আসবে দেশ। তবে এ ক্ষেত্রে সুশীল সমাজের নাগরিকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।নির্বাচন কমিশননের নিরপেক্ষতার প্রসঙ্গ টেনে তিনি আরও বলেন, এই নির্বাচন কমিশন (ইসি) সরকারের আজ্ঞাবহ একটি প্রতিষ্ঠান। এই নির্বাচন কমিশন দিয়ে কোনও সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি দেশকে সহিংতার দিকে ঠেলে দিয়ে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, বিএনপিকে বাদ দিয়ে তফসিল ঘোষণা করে সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের যৌথ পরিকল্পনার একটি জাতীয় তামাশা করা হয়েছে।

এদিকে নয়াপল্টন এলাকায় সরেজমিন আজও গতাকলের চিত্রই দেখা গেছে, অবরোধকে কেন্দ্র করে নয়াপল্টনস্থ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।বরাবরের মত পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব অবস্থান করছিল বিএনপি অফিসের সামনে।এপিসি, কামান বিগেল, প্রিজন ভ্যান ও এ্যাম্বুলেন্স সহ বিপুল সংখ্যক আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা ছিল বিএনপি অফিসের সামনে দায়িত্বরত।  দলীয় কার্যালয় অনেকটা অবরুদ্ধ করে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। সাদা পোশাকধারী পুলিশও আশপাশে অবস্থান করতে দেখা গেছে। পূর্বের ন্যায় আজও কার্যালয়ের মূল ফটকে তালা ঝুলছে।

এমআর/