আওয়ামী লীগ নির্বাচনী প্রচারণায় গণমাধ্যমকে কাজে লাগাতে চায়

0
101
AL-Logo

AL-Logoআগামি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গণমাধ্যমকে প্রচার মাধ্যম হিসেবে কাজে লাগাতে চায় ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। এজন্য দলটি এখন প্রচারণার পুরোনো কৌশল থেকে বেরিয়ে এসে নতুন করে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রচার চালাবে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে সবধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। কিছুদিন পরেই তা প্রকাশ পাবে দেশবাসীর কাছে। এমন পরিকল্পনার কথাই জানা গেছে দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সাথে কথা বলে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচার হবে জাতীয়-আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনের মতোই এবারও নির্বাচনে দলটি প্রচার ও প্রচারণায় গণমাধ্যমকে কাজে লাগাতে চায়। এ জন্য তারা দেশি-বিদেশি ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট, অন-লাইনে পুরোদমে নির্বাচনী প্রচার চালাবে বলে পরিকল্পনাও নিয়েছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রচার-প্রচারণাকে কেন্দ্র করে অনেক আগেই প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে কাজ শুরু হয়েছে। এর সাথে যুক্ত হয়েছেন বঙ্গবন্ধুর অন্যতম দৌহিত্র শেখ রেহানার পুত্র রেদওয়ান সিদ্দিকী ববি। অনলাইনভিত্তিক ফেসবুক, টুইটার, ব্লগ, ইমেইলসহ সকল সামাজিক গণমাধ্যমে প্রচারের জন্য ব্যবহারযোগ্য বিভিন্ন টেক্সট, পিক্স প্রস্তুতের কাজ শেষ হয়েছে।

প্রধান মন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নির্দেশনায়, রেদওয়ান সিদ্দিক ববির সার্বিক পরিচালনায় এবং অনলাইন প্রযুক্তিতে দক্ষ বেশ কিছু কর্মী নিয়ে খুব দ্রুতই শুরু করা হবে আওয়ামী লীগের সাইবার প্রচারণা। ইতোমধ্যে বেশ কিছু প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশোনা করা ছেলেমেয়ে এই কার্যক্রমে যুক্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

দলীয় সূত্রে আরও জানা গেছে, ইতোমধ্যে কেবল অপারেটর এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সাথে বৈঠক হয়েছে। ২টি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে  বিজ্ঞাপন সম্প্রচার শুরু হয়েছে। খুব শিগগির বাকিগুলোতেও শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল প্রতিটি প্রিন্ট মিডিয়ার সাথে বৈঠক করবেন। আগামি ১০ ডিসেম্বর থেকে এ সকল গণমাধ্যমে আনুষ্ঠানিক প্রচারের কাজ শুরু হবে।

তবে শুধু দেশিই নয় থাকছে বিদেশি গণমাধ্যমও। রাজধানীর একটি পাঁচ তারা হোটেলে প্রতিদিন সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচনের সকল কর্মকাণ্ড  সম্পর্কে অবহিত করা হবে।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ অর্থসূচককে বলেন, ইন্টারনেট কেন্দ্রীক বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচার প্রচারণা চালানো হবে।

সকল গণমাধ্যমে আমরা নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালাবো। এই প্রচার একদিকে মহাজোট সরকারের ৫ বছরের সফলতা ও একই সঙ্গে বিগত সরকারের অগ্রগতিসমূহ তুলে ধরা হবে। অন্যদিকে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের হরতাল-নৈরাজ্যেমূলক কর্মকাণ্ডের চিত্র জনগণের সামনে তুলে ধরা হবে যাতে জনগণ সহজেই বিচার করতে পারে  তারা কাকে নির্বাচিত করবেন।

 

এমআইকে/এআর