ভারতের বাজারে নতুন পরিকল্পনা ম্যাগির

অর্থসূচক ডেস্ক

0
46
ছবি সংগৃহীত

নেসলের নুডলস ম্যাগিতে মাত্রাতিরিক্ত মনোসোডিয়াম গ্লুমেট এবং সীসা পাওয়ার পরে সারা ভারতেই নিষিদ্ধ ছিল পণ্যটি। সেসময় বিশ্ব খাদ্যসংস্থার পক্ষ থেকেও পণ্যটির বিষয়ে ভোক্তাদের সাবধান করা হয়। সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয় যে কোনো খাবারে প্রতি মিলিয়নে ০.০১ শতাংশ সীসা অনুমোদিত কিন্তু ম্যাগিতে প্রতি মিলিয়নে ১৭ শতাংশ সীসা পাওয়া গেছে।

মূলত ভারত সরকার ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এমন নির্দেশ ও তথ্য উপস্থাপনের  পর বাণিজ্যিকভাবে বেশ চাপের মুখে পড়ে নেসলে ইন্ডিয়া। তবে আইনি লড়াইয়ের পরে দেশটির কয়েকটি প্রদেশে প্রায় ৫ মাস বন্ধ থাকার পর পণ্যটি আবার বিক্রি শুরু হয়েছে।

আর এই অবস্থায় আগের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে নানান পরিকল্পনা করছে নেসলে ইন্ডিয়া।

সম্প্রতি কোম্পানিটির তরফ থেকে বলা হয়েছে, ম্যাগি নুডুলসের মান বৃদ্ধির মাধ্যমে ভারতের বাজারে আবার আগের অবস্থান ফিরে পাবে তারা। আর এই উদ্যোগের পর আসছে বছর ভারতের বাজারে কোম্পানিটির প্রবৃদ্ধি দুই অংক ছাড়িয়ে যাবে বলেও আশা প্রকাশ করা হয়েছে কোম্পানির তরফে।

নেসলে ইন্ডিয়া ডিজিটিাল প্রচারণার মাধ্যমে তাদের হারানো ভোক্তাদের আকৃষ্ট করার চেষ্টা করবে। সেই সাথে মোট রাজস্ব বাড়াতে ম্যাগি ছাড়াও অন্যান্য পণ্যে বিপণন সম্প্রসারণে সমান গুরুত্ব দেবে।

রোববার টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোম্পানিটি ডিজিটিাল প্রচারণার মাধ্যমে তাদের হারানো ভোক্তাদের আকৃষ্ট করার চেষ্টা করবে।

এছাড়া , তাদের মোট রাজস্ব বাড়াতে ম্যাগি ছাড়াও অন্যান্য পণ্যে বিপণন সম্প্রসারণে সমান গুরুত্ব দেবে।

ভারতে কোম্পানিটির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুরেশ নারায়নান জানান, ম্যাগি নুডুলসের সংকটের ফলে গত কয়েক মাসে কোম্পানিটির অনেক ক্ষতি হয়েছে। এখন যেভাবেই হোক কোম্পানিটিকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার জন্য দুই অংকের প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগিয়ে যাবেন তারা।

তিনি জানান, প্রচারণার জন্য এখন তারা টেলিভিশন বিজ্ঞাপনের পাশাপাশি ফেসবুক, টুইটারের মতো সামজিক মাধ্যমগুলোও ব্যবহার করবে।

কেম্পানির তরফ থেকে বলা হয়েছে, সেই মে মাসে ম্যাগির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর সারা ভারতের প্রায় ৭০০ শহরে পণ্যটির বেচাকেনা বন্ধ থাকে।

তবে গত মাসে ফের বিক্রি শুরু হওয়ার প্রথম ১০ দিনেই নেসলে ইন্ডিয়া ৩ কোটি ৩০ লাখ প্যাকেট ম্যাগি নুডলস বিক্রি করে ।একারণেই কোম্পানি ভারতের বাজারে নতুন সম্ভাবনা দেখছে। চিন্তা করছে ব্যবসার কৌশল বদলেরও।

পিএল/টিআর