অতি পরিচিত মাল্টা

0
491
malta

maltaআজকের দিনে মাল্টা হয়ত কারও কাছে অপরিচিত ফল না। কমলার মতো দেখতে মাল্টা বেশ জনপ্রিয় একটি ফল।একসময় ফলটি পাওয়া যেত শুধু ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের গভীর জঙ্গলে। সমুদ্র পেরিয়ে মাল্টা ফলটি ছড়িয়ে গেছে এখন সারা বিশ্বে।এর পুষ্টিগুণের কারণেই হয়ত এই ফল ছড়িয়ে গেছে সারা বিশ্বে।

আমরা মাল্টা হিসেবে ফলটি চিনলেও জায়গাভেদে ভিন্ন নাম এটির। হিন্দি ও উর্দুতে মাল্টার নাম চকোতরা, তামিল ভাষায় পাম্বালিমাসু, মালয়ালম ভাষায় পাম্পারামাসান, তেলেগুতে পামপারা, কনকানি ভাষায় তোরাঞ্জি ও সংস্কৃত ভাষায় মাধুকরকাটি।

ফলটি উষ্ণ এবং শুষ্ক জলবায়ুর জন্য অত্যন্ত উপযোগী। আর বায়ুমণ্ডলের আর্দ্রতা ও বৃষ্টিপাত মাল্টার গুণাগুণ ও স্বাদে পরিবর্তন এনে দেয়। উজ্জ্বল কমলা রঙের এই ফলে কী আছে? এ প্রশ্ন সবার মনেই জাগতে পারে।

পুষ্টিগুণ:

মাল্টা যেমন দেখতে আকর্ষণীয়, তেমনি তার পুষ্টিমানেও আছে বৈচিত্র্য। এতে থাকে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন এ, সি এবং ই। আছে ক্যালসিয়াম, খনিজ, ম্যাগনেসিয়ামসহ আরও সব প্রয়োজনীয় উপাদান।মাল্টায় ক্যালরি থাকে কম। আর আছে পেকটিন নামের একধরনের ফাইবার, যেটি কোলন ক্যানসার প্রতিরোধে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে। মাল্টা শরীরের ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। প্লাভানয়েড নামের একধরনের উপাদানের উপস্থিতির কারণে ফুসফুস ও মুখের ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে পারে মাল্টা।

ত্বক ভালো রাখতে মাল্টার জুড়ি নেই। ত্বকের ক্ষয় পূরণ ও সৌন্দর্য বাড়াতে নিয়মিত মাল্টা খেতে পারেন।

মাল্টা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ। তাই রোগ প্রতিরোধ এবং ক্ষতিকারক জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াই করার এক অপূর্ব ক্ষমতা আছে মাল্টার।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে এবং হৃৎস্পন্দনের স্বাভাবিকতা ধরে রাখতে প্রতিদিন খেতে পারেন মাল্টা।

এমআরবি/