কালকিনিতে জমে উঠেছে উপজেলা নির্বাচন

0
156
madaripur
মাদারীপুরের মানচিত্র

মাদারীপুরমাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী নির্বাচন করছেন। ইতিমধ্যে উপজেলা জুড়ে নির্বাচনের প্রচার কর্মসূচি জমে উঠেছে।

নির্বাচন অফিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা তাহমিনা সিদ্দিকী, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক (বহিস্কিকৃত) বিদ্রোহী প্রার্থী তৌফিকুজ্জামান শাহীন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত লে. কর্ণেল বজলুল করিম সেলিম।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত হোসেন লিটন, জামায়াত নেতা অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম ও ব্যবসায়ী খোন্দকার জাকির হোসেন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করবেন।

এছাড়াও সংরক্ষিত মহিলা আসনের ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের রিনা আক্তার, কাজী নাসরিন ও নাহিদা বেগম নির্বাচনে করবেন। এই উপজেলায় ৩টি পদে মোট ১০ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

এদিকে উপজেলা বিএনপির প্রার্থী উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি অহিদুজ্জামান আব্দুল হাইর মনোনেয়নপত্র বাতিল হওয়ায় তিনি হাইকোর্টে আপিল করেছেন।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে কালকিনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৭৬ হাজার ২৩৭।

এলাকাবাসি জানায়, উপজেলা চেয়ারম্যানদের চাইতে ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ ও মহিলাদের প্রচার-প্রচারণা চোখে পড়ার মতো তারা প্রতিটি ভোটারের বাড়ী বাড়ী গিয়ে ভোট প্রার্থণা করছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যানের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অধ্যাপিকা তাহমিনা সিদ্দিকী ও তৌফিকুজ্জামান শাহীনের মধ্যে যে কোন একজন নির্বাচিত হবেন।

আওয়ামী লীগের ভোট দু’ভাগে ভাগ হওয়ায় ভোটের ব্যাবধান ও বেশী হবেনা বলেও জানা যায়। স্বতন্ত্র প্রার্থী বজলুল করিম সেলিম প্রথমবার নির্বাচন করায় তিনি ভবিষ্যতের জন্য এলাকায় পরিচিত হয়ে থাকবেন বলেও অনেকে মন্তব্য করেন।

বিএনপি প্রার্থী অহিদুজ্জামান আব্দুল হাই হাইকোর্ট থেকে নির্বাচন করার অনুমতি পেলে তিনিও অনেক ভোট পাবে বলে তার দলীয় নেতা-কর্মিরা আশাবাদী। তবে বিএনপি প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হলে সে ক্ষেত্রে তাদের ভোট শাহীনের পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশী রয়েছে বলে স্থানীয় ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়।

মাদারীপুর-৩ (কালকিনি মাদারীপুরের সদরের একাংশের) সংসদ সদস্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় ১০ম সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়েছেন। আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এই উপজেলা। তবুও এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচিত হওয়ার সম্ভবনা উড়িয়ে দেওয়ার মতো নয়।

আওয়ামী লীগের এক নেতা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী নির্বাচনে হারলে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হবে আওয়ামী লীগ। কারণ দলের মধ্যে দু’গ্রুপ হলে ভবিষ্যতে হারাতে পারে সংসদ সদস্য পদটিও। এখন দেখার পালা উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী না বিদ্রোহী প্রার্থী জয় লাভ হয়।

অনেক ভোটার অভিযোগের সুরে বলেন, এলাকায় বেশীর ভাগ প্রার্থী নির্বাচন আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছে। কেউ শতাধিক কেউ অর্ধশত মটরসাইকেল নিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন।

সাকি/