রাজৈরে গণধর্ষণের শিকার এসএসসি পরীক্ষার্থী

0
75
rape

rapeমাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার বদরপাশা ইউনিয়নের নয়ানগর গ্রামে অস্ত্রের মুখে গণধর্ষণের শিকার হয়েও চরম আতঙ্ক ও মানসিক কষ্ট নিয়ে আজকের এসএসসি পরীক্ষার্থীয় অংশগ্রহণ করছে ঐ ধর্ষিতা পরীক্ষার্থী।

পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তারই স্কুল রাজৈর কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ অলিক কুমার ধর।

এদিকে গণধর্ষনের ব্যাপারে ধর্ষিতার বাবা ফেরদৌস শেখ, রোমান মিয়া ও অজ্ঞাত এক বখাটের বিরুদ্ধে রাজৈর থানায় মামলা করলে পুলিশ রাজৈর থানার বদরপাশা ইউনিয়নের কাজী কাঠাল গ্রামের পান্না কাজী নামে এক ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছেন রাজৈর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জান।

গণধর্ষিতা জানান, সে আজকের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছে। তার পরীক্ষার প্রস্তুতিও মোটামুটি ভালো। সে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছে।

ধর্ষিতার মাও তার মেয়ের পরীক্ষার জন্য সকলের দোয়া চেয়েছেন।

উল্লেখ্য, ৩০ জানুয়ারী ভোরে ঐ শিক্ষার্থী প্রাইভেট পড়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে কিছুদূর আসার পর রাজৈরের বদরপাশা ইউনিয়নের নয়ানগর এলাকার নির্জন স্থানে ওঁৎ পেতে থাকা একই উপজেলার বদরপাশা গ্রামের ফেরদৌস শেখ, রোমান মিয়া ও অজ্ঞাত এক বখাটে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ঐ পরীক্ষার্থীর মুখ বেঁধে পার্শ্ববর্তী গম ক্ষেতে নিয়ে তাকে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ওই শিক্ষার্থীর আত্মীয়-স্বজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রাজৈর উপজেলা হাসপাতাল ও পরে রাতে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পুলিশের সহযোগিতায় ভর্তি করে।

৩০ জানুয়ারী রাতেই ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে ধর্ষক ফেরদৌস শেখ, রোমান মিয়া ও অজ্ঞাত এক জনের বিরুদ্ধে রাজৈর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

সাকি/