সৌদিতে বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন নারীরাও

0
30
divorse

divorseমানসিক নির্যাতন ও দূরত্ব, স্বামীদের দূর্ব্যবহার, অবহেলা, জোর করে বিয়ে এমনকি স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অসম বয়স  ইত্যাদি কারণে সৌদিতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে বিবাহ বিচ্ছেদের  হার। এ সবের অধিকাংশই দেয়া হচ্ছে স্ত্রীদের পক্ষে থেকে। খবর আরব নিউজের।

আরব নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ৩৫ দিনে ১২৮ টির মতো বিবাহ বিচ্ছেদ সংক্রান্ত মামলা জমা পড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির আইন ও বিচার মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে ৫৬ শতাংশ মামলাই জমা পড়েছে রিয়াদ ও জেদ্দায়।  এছাড়  ২১ টি গুজরাটে বাকিগুলো অন্যান্য আদালতে জমা পড়েছে।

আইনবিদ গাজী আল শামারী জানান, ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেল এটি খোলা নামে পরিচিত। তিনি বলেন, অধিকাংশ মামলার নথিতে উল্লেখ করা হয়েছে, স্ত্রীদের পক্ষ থেকে ডিভোর্স চাওয়ার মুল কারণ হচ্ছে স্বামীরা তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করেছে অন্যদিকে তারা অবহেলারও শিকার হচ্ছে।

এছাড়া কিছু কিছু মামলা নথিতে বলা হয়েছে, স্বামীরা তাদের জোর করে বিয়েতে বাধ্য করেছে। এবং স্বামী-স্ত্রীর মধ্যকার বয়সটা অসামঞ্জস্য বলে ঐসব নথিতে বলা হয়।

শামারী বলেন, সৌদিতে ক্রমবর্ধমান ডিভোর্সে সংখ্যা কমিয়ে আনতে পরিবারের সংস্কৃতিকে উন্নয়ন করতে হবে। তিনি জানান, স্বামী ও স্ত্রী উভয়ের উচিত তাদের বৈবাহিক জীবন কিভাবে কাটাবেন সে বিষয়ে শিক্ষা অর্জন করা। তাহলেই এই সমস্যা কিছুটা দুর হবে বলে মনে করেন তিনি।

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ বিষয়ে কোর্সও চালু করা যেতে পারে বলে জানান তিনি।

এস রহমান/