লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে এসএমই ঋণ বিতরণ

0
76
sme
লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে এসএমই ঋণ বিতরণ
sme
এসএমই ঋণ নিয়ে নিজের উদ্যোগে বাণিজ্যিক প্রকল্পে কাজ করছেন এক নারী উদ্যোক্তা

সদ্যসমাপ্ত ২০১৩ সালে ৮৫ হাজার ৩২৩ কোটি ২৫ লাখ টাকার এসএমই ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। বিতরণকৃত এই ঋণের পরিমাণ ছাড়িয়ে গেছে ওই সময়কার লক্ষ্যমাত্রাকেও। এ বছর ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৪ হাজার ১৮৭ কোটি টাকা। সে হিসেবে এই সময়ে ঋণ বিতরণ হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার ১১৬ শতাংশ। বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০১৩ সালে রাজনৈতিক অস্থিরতায় শিল্প খাতে বিনিয়োগ অনেক কমে যায়।এ সুযোগে ছোট ছোট শিল্প বা এসএমই শিল্পগুলো বেশি গড়ে ওঠার সুযোগ পেয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশে দিন দিন ছোট ছাট শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ার দিকে উদ্যোক্তারা বেশি নজর দিচ্ছে। এ কারণে এসএমই খাতে ঋণের চাহিদা বাড়ছে। চাহিদা বাড়ায় ঋণ বিতরণও বেশি হচ্ছে বলে জানান তারা।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৩ সালে মোট ৭ লাখ ৪৪ হাজার ২২৮ জন উদ্যোক্তা এ ঋণের সুবিধা গ্রহণ করেছেন। আর ২০১২ সালের তুলনায় ২০১৩ সালে ১৫ হাজার ৫৬৯ কোটি ৮৩ লাখ টাকারও বেশি ঋণ বিতরণ করা হয়েছে।

আলোচ্য সময়ে ছোট শিল্প খাতে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ৪৪ হাজার ৩১২ কোটি ৩২ লাখ টাকা। এ খাতে বিতরণকৃত ঋণ ২০১২ সালের চেয়ে ৬ হাজার ৪৮৩ কোটি ৮৬ লাখ টাকা বেশি।

গত বছর উৎপাদনশীল খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৯ দশমিক ৬৮ শতাংশ। এ খাতে মোট ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ২৪ হাজার ১৬ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। তবে ঋণ বিতরণ বাড়লেও উদ্যোক্তার সংখ্যা ৩১ দশমিক ৩৯ শতাংশ থেকে কমে ২৮ দশমিক ১৫ শতাংশে নেমে এসেছে।

সেবা খাতে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ৪ হাজার ৬০২ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। এ খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৬ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

এ বছর ব্যবসা খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৮ দশমিক ২২ শতাংশ। এ খাতে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ৫৬ হাজার ৭০৩ কোটি ৭২ লাখ টাকা। ২০১২ সালের তুলনায় ঋণ বিতরণ বেশি হয়েছে ১২ হাজার ৪৭৮ কোটি ৫৩ লাখ টাকা।

এ বছর নার উদ্যোক্তা খাতে ঋণ বিতরণের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫০ দশমিক ৪৭ শতাংশ। নারী উদ্যোক্তারা মোট ৩ হাজার ৩৪৬ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ঋণ পেয়েছেন।

২০১৩ সালে মোট বিতরণকৃত এসএমই ঋণের মধ্যে ৬৫ হাজার ৪৭২ কোটি ৮৫ লাখ টাকা শহরের উদ্যোক্তারা এবং ১৯ হাজার ৮৫০ কোটি ৪০ লাখ টাকা গ্রামের উদ্যোক্তারা ঋণ পেয়েছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রোগ্রামস বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. মাছুম পাটোয়ারী বলেন, এসএমই বিভাগ থেকে নতুন নতুন উদ্যোগ অন্বেষণ এবং বিদ্যমান কিন্তু সুবিধাবঞ্চিত এসএমই খাত ও উদ্যোক্তা চিহ্নিত করা হচ্ছে। এবং এসব খাতকে অর্থায়নের আওতায় এনে ঋণ বিতরণের ওপর গুরুত্বারপ করা হচ্ছে। এসএমই’র আওতায় ডিসিসিআই-এর উদ্যোগে ২০০০ জন নতুন উদ্যোক্তা তৈরির কাজ চলছে। তাছাড়া এসএমই খাতের উন্নয়নের জন্য এবং এ খাতের উদ্যোক্তারা যেন যথাযথ ভাবে ঋণ পায় সে ব্যবস্থা করা হয়েছে। উদ্যোক্তাদের সাথে বিভিন্ন সময় সভা, সেমিনার এবং মিথস্ক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। গভর্নরের নির্দেশে এবং এসএমই বিভাগের আন্তরিকতায় এ খাতে ঋণ বিতরণ বাড়ছে বলে তিনি জানান। দিন দিন এ ঋণ বিতরণ আরও বাড়বে বলে তিনি মনে করেন।