বইমেলায় হরতালের প্রভাব পড়ার আশংকা

0
101
boi mela

boi melaহরতাল আতংকে বাঙালির প্রাণের স্পন্ধন অমর একুশে গ্রন্থমেলা। আগামিকাল বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আহুত হরতালে এ আশঙ্কা করছে মেলার স্টল মালিক, লেখক, প্রকাশক ও দর্শনার্থীরা। আর এ কারণে বই মেলায় অনেক দর্শনার্থী আসবেনা ধারণা এখন সবার মনে। আর হরতালের প্রভাবে দেশ আবার অস্থিতিশীল হয়ে উঠলে ব্যাপক ক্ষতিতে পড়বেন তারা বলেও আশঙ্কা করছেন।

বই মেলায় কথা হয়েছিল বিশিষ্ট লেখক দিলদার হোসেনের সাথে। তার কাছে জানতে চেয়েছিলাম আগামিকাল হরতালে বই মেলায় কোনো প্রভাব পড়বে কিনা?  উত্তরে তিনি বলেন, বইয়ের সাথে মানুষের শত্রুতা নেই। সবাই বইকে ভালবাসে তাই আমি মনে করি বই মেলায় হরতারের কোনো প্রভাব পড়বে না।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালের ২৫শে ফেব্রুয়ারি বিডিআর বিদ্রোহতে আমরা দেখিছি মানুষ বই মেলায় এসেছে কালও আসবে।

মেলায় আসা দর্শনার্থী মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমি প্রতিদিন চেষ্টা করি মেলায় আসতে। আগামিকাল হরতাল হলে আমি বের হব না।

তিনি আরও বলেন, এভাবে অনেক লোক আছে যারা কাল ঘর থেকে বিনা প্রয়োজনে বের হবে না। তবে আমি বলব জামায়াত যেন তাদের হরতাল তুলে নেয়।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুখপাত্র উত্তরণের একজন বিক্রয় প্রতিনিধি প্রমা বলেন, মেলায় এখনও বিক্রি নাই। সবাই দেখছে কিউ বই কিনছে না।

তবে আগামিকালের হরতাল সর্ম্পকে তিনি বলেন, স্বাভাবিকভাবে হরতালের কারণে দর্শনার্থী একটু কম হতে পারে বলে জানান।

তবে তিনি এও মনে করেন আগামিকালের হরতাল দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করে মেলায় আসবে।

আজ মেলায় বই প্রেমীদের জন্য নতুন বই এসেছে ৭৬টি। যার মধ্যে কবিতা ২৬টি, ছড়া ৪টি, উপন্যাস ১৫টি, গল্প ৮টি, প্রবন্ধ ৩টি, শিশু সাহিত্য ৫টি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ২টি, রচনাবলী ২টি, নাটক নাই, বিজ্ঞান ১টি, ভ্রমণ ১টি, রাজনীতি ১টি, রম্য/ধাঁধা ১টি, ইতিহাস নাই, সায়ন্স ফিকশন ৩টি এবং অন্যান্য ৬টি বই মেলায় এসেছে।

আজ মেলার পঞ্চম দিনে সবচেয়ে বেশি বই মেলায় এসেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কবিতা, গল্প ও উপন্যাস রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে হুমায়ন আজাদের নির্বাচিত কবিতা। প্রকাশ করেছে বিভাস। এর মূল্য ধরা হয়েছে ১৬০টাকা। ইমদাদুল হক মিলনের সায়েন্স ফিকশন “মায়াঘর” বইটি প্রকাশ করেছে অনন্যা প্রকাশনী, মূল্য ধরা হয়েছে ২৫০ টাকা।

মুহাম্মাদ জাফর ইকবালের শিশুতোষ গল্প “ডজন ডজন পশু পাখি” বইটি প্রকাশ করেছে পার্ল পাবলিকেশন। যার মূল্য ধরা হয়েছে ১৫০ টাকা।

শুধু একদিন ভালবাসা লেখক আনিসুল হক। বইটি প্রকাশ করেছে পার্ল পাবলিকেশন, বইটির মূল্য ধরা হয়েছে ১৩৫ টাকা।

অজয় কুমারের “পাশা ও দেহবাস” বইটি প্রকাশ করেছে গণ প্রকাশনী। বইটির মূল্য ১০০টাকা।

আজকের মেলায় সবচেয়ে বেশি মূল্যের বই “রাধার মন গীতিমালা” বইটি লেখক নন্দলাল শর্মা। বইটি প্রকাশ করেছে উৎস প্রকাশনী। মূল্য ধরা হয়েছে ৯৫০ টাকা। এবং সবচেয়ে কম দামের বই ফেসবুকের ছড়া, পাখি ভাই, অঙ্কে ফড়িং যার মূল্য ধরা হয়েছে ৭০ টাকা।

আজকে মেলায় ৩টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। উন্মোচিত বইগুলো হল- ড. রুমানা আফরোজের ঢাকা শহরের বিহারিদের ভাষা: সমাজ ভাষাবিজ্ঞানগত সমীক্ষা, শামীম খান যুবরাজের বিষ্টি ঝরে মিষ্টি সুরে এবং মো. গোলজার হোসেনের স্রষ্টার সৃষ্টি।

আজকের মেলায় আবু মহামেদ হাবিবুল্লাহর জীবনী নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনা অনুষ্ঠানে মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অধ্যাপক ড. অজয় রায়, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক ড. এবিএম হোসেন।