মেলায় স্বাস্থ্য সেবা দিচ্ছে আয়েশা মেমোরিয়াল

0
91
health

healthবাণিজ্য মেলায় ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা দিচ্ছে আয়েশা মেমোরিয়াল  স্পেশালাইজড হসপিটাল। প্যাভিলিয়ন ও স্টলগুলোতে কর্মরত আছে স্বাস্থ্য সেবার কয়েক হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী। প্রতিদিন মেলায় আসছে হাজার হাজার ক্রেতা-দর্শনার্থী। কেউ আহত হলে তাকে দ্রুত চিকিৎসা সেবা দিতেই এই আয়োজন। বাণিজ্য মেলার আশপাশে একমাত্র সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল ছাড়া এখানে আর কোনো হাসপাতাল নেই বলে জানা গেছে।

পারটেক্স শোরুমের পেছনে রোমানিয়া বিস্কুটের পাশে অবস্থিত এ অস্থায়ী হসপিটালের সেবা কেন্দ্রটি। মেলাতে কেউ আহত হলে হসপিটালটিতে গেলে সেখানে দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে দ্রুত চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন। রোগীর প্রয়োজন অনুযায়ী ওষুধও দিয়ে থাকেন।  আর রোগী গুরুতর আহত হলে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দ্রুত অন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। শরীরে কোনো অংশ কাঁটা-ছেড়া গেলে তাতে বেন্ডেজও করা হয়। তবে এ চিকিৎসা সেবাটি সম্পূর্ণ ফ্রি দেওয়া হচ্ছে। মানবতার সেবা আর হাসপাতাল সম্পর্কে রোগীদের অবহিত করতেই মেলায় এ সেবা প্রদান করছে বলে জানান দায়িত্বরত ডাক্তাররা। এছাড়া স্বাস্থ্য বা রোগ বিষয়ক যেকোনো পরামর্শও পাওয়া যাচ্ছে এখানে।

এছাড়া যে কেউ ইচ্ছে করলে এক বছরের জন্য একটি চিকিৎসা সেবার কার্ড নিতে পারবেন। কার্ডটির বিশেষ সুবিধা হল এক বছরে আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা ও বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার উপরে পাবে ১০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়।

এভাবেই  ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ দিয়ে মেলায় আগত দর্শনার্থীদের প্রতিদিন সাহায্য করছে আয়েশা মেমোরিয়াল স্পেশালাইজড হসপিটাল লিমিটেডের সেবা ক্যাম্পটি।

হাসপাতালটিতে গিয়ে দেখা গেছে, যারা একটু বেশি অসুস্থ তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দ্রুত একটি কার্ড করিয়ে অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয় মূল হসপিটালে। সেখানে রোগীর সব ধরনের পরীক্ষায় দেওয়া হয় ১০ শতাংশ ছাড়।

এ ব্যাপারে কথা হলে অস্থায়ী হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার আনিসা জানান, এই সেবা ক্যাম্পে ব্লাডের সুগার নির্ণয়, রোগীর প্রেসার মাপা, ফ্রি প্রাথমিক চিকিৎসা, ফ্রি পরামর্শ, ফ্রি হেলথ কাড, সার্বক্ষনিক ডাক্তার সেবা, অক্সিজেন নেবুলাইজেশন এমনকি অ্যাম্বুলেন্সেও সেবা দেওয়া হয়। তবে এ জন্য কোনো টাকা পয়সা নেওয়া হয় না। মেলায় দর্শনার্থীদের ভিড় বাড়তে থাকায় কখনও কখনও বেশ হিমসিম খেতে হয় বলেও জানান তিনি।

এ সেবা যতদিন মেলা থাকবে ততদিন দেওয়া হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন,  এখানে সব বয়সী মানুষেরা সেবা নিতে আসেন।  মেলায় আগত দর্শনার্থীরা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের সেবা দিয়ে সুস্থ করে ফেরত পাঠানোই সেবা ক্যাম্পটির মূল উদ্দেশ্য।

হাসপাতালটিতে ফ্রি চিকিৎসা নিতে আসা ফাতেমা বেগম অর্থসূচককে বলেন, এখানে মেয়ের জ্বর পরীক্ষা করলাম। টাকা লাগেনি।

রক্তের সুগার নির্ণয় করতে আসা হাবীব বলেন, অন্যখানে এই সেবা নিতে গেলে টাকা লাগে। কিন্তু এখানে ফ্রি চিকিৎসা বেশ ভালই হচ্ছে।

মেলায় ঘুরতে আসা দর্শনার্থী মীম ও তার বন্ধু বলেন, বর্তমান সময়ে ফ্রি চিকিৎসা সেবার কথা চিন্তা করাও ভুল, তার উপর আবার পরীক্ষা ও ফ্রি ওষুধ ! এটা বর্তমান সময়ে পাওয়া বিরল।

জেইউ