তথ্য প্রদানে ১৪ হাজার ব্যাংকারকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রশিক্ষণ

0
34

BB Training Photoইন্টিগ্রেটেড সুপারভিশন সিস্টেম সফটওয়ারের মাধ্যমে সঠিকভাবে তথ্য দিতে তফসিলভুক্ত ব্যাংকগুলোর সব ব্রাঞ্চের একজন করে কর্মকর্তাকে প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। প্রাথমিকভাবে প্রধান কার্যালয় এবং এডি ব্রাঞ্চগুলোর ৭০০ কর্মকর্তাকে এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। ২০১৪ সালের মধ্যে পর্যায়ক্রমে সব শাখার একজন কর্মকর্তাকে এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

জানা গেছে, তফসিলভুক্ত ব্যাংকগুলোর ওপর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পর্যবেক্ষণ আরও কঠোর ও নিবিঢ় করতে ‘ইন্টিগ্রেটেড সুপারভিশন সিস্টেম সফটওয়ার’ চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। গত আগস্ট মাসে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ওয়েবসাইটে চালু হওয়া এ সফটওয়ারের মাধ্যমে ব্যাংকের সব শাখাগুলোকে তাৎক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হচ্ছে। কিন্তু শাখাগুলো সঠিকভাবে তথ্যপ্রদানে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের এ প্রশিক্ষনের আয়োজন করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে ৪ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে এ সব কর্মকর্তাদের নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু হয়েছে। এ কর্মশালা চলবে ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

এরপর পর্যায়ক্রমে শহরের বড় শাখা, অতঃপর ছোট শাখা এবং সবশেষে গ্রামীণ এলাকায় অবস্থিত শাখার কর্মকর্তারা এই প্রশিক্ষনে অংশ নেবে। চলতি বছরের পুরো সময়জুড়ে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালা চলবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, পর্যাপ্ত লোক বলের অভাবে ব্যাংকগুলোর সব শাখাকে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হয় না। তাছাড়া বর্তমান নিয়মে কোন শাখার প্রকৃত তথ্য পেতে অনেক সময় চলে যায় ফলে এসব শাখার অনিয়ম ধরা পড়লেও যথাসময়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হয় না। এজন্য শাখা গুলোতেও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মনিটরিং আরও জোরদার করতে এ সফটওয়ার চালু করা হয়েছে। এ সফটওয়ারের মাধ্যমে শাখাগুলো তাদের মাসিক প্রতিবেদনের তথ্য উপস্থাপন করবে। আর কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে এসব তথ্য তাৎক্ষণিকভাবে পর্যালোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ নওশাদ আলী চৌধুরী অর্থসূচককে বলেন, এ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ব্যাংকগুলোর শাখা পর্যায়ের আর্থিক পরিস্থিতি অনলাইনে পর্যবেক্ষনের জন্য নতুন যে সফটওয়্যার চালু করা হয়েছে তার ব্যবহার শেখানো হবে। এতে ব্যাংক কর্মকর্তাদের দক্ষতা বাড়বে। যা আমাদের তদারকি আরও নিবিড় ও জোরদার করার ক্ষেত্রে সহায়তা করবে।

শাখা পর্যায়ের কর্মকর্তারা ‘ইন্টিগ্রেটেড সুপারভিশন সিস্টেম’ সফটওয়্যার ব্যবহার করে দ্রুততম সময়ে তথ্য পাঠালে ব্যাংকিং খাতের অনিয়ম অনেকাংশে কমে আসবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ব্যাংক কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষনের পর আগামি বছর এ সফটওয়ারের মাধ্যমে তথ্য প্রদানের জন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদেরও প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

তিনি আরও জানান, সারাদেশে বিভিন্ন ব্যাংকের যে ৮ হাজার শাখা রয়েছে, এর প্রত্যেক শাখার অন্তত একজন কর্মকর্তা এই প্রশিক্ষণ পাবেন। আগে এ সফটওয়ার চালু থাকলে ব্যাংকিং খাতে হল মার্ক, বিসমিল্লাহ গ্রুপের মত বড় জালিয়াতি রোধ করা সম্বব হতো বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, গতবছর ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকগুলোকে নির্ভূল তথ্য-উপাত্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে ‘ইন্টিগ্রেটেড সুপারভিশন সিস্টেম’সফটওয়্যার চালু করে।

এসএই/