ভালবাসা দিবসে পূর্ণিমার ‘লোভে পাপ পাপে মৃত্যু’

0
77
purnima

purnimaবিশ্ব ভালবাসা দিবসে নায়িকা পূর্ণিমা দর্শকদের সামনে আসবেন ‘লোভে পাপ পাপে মৃত্যু’ ছবিটি নিয়ে। সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত এ ছবিতে পূর্ণিমার নায়ক আমিন খান ও রিয়াজ। এই দুই নায়কের সঙ্গে এটাই আপাতত তার শেষ ছবি। রাজধানী কথাচিত্রের ব্যানারে নির্মিত ‘লোভে পাপ পাপে মৃত্যু’ আসন্ন ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালবাসা দিবসে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

অনেক দিন পর পূর্ণিমা দর্শকদের সামনে আসবেন। স্বামী আর সংসার নিয়ে ব্যস্ত থাকার কারণে পূর্ণিমা চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন। মা হতে যাচ্ছেন বলে রয়েছেন পূর্ণ বিশ্রামে। স্বভাবজাত কারণেই যোগাযোগ রাখেন না কারও সঙ্গেই। প্রয়োজন ছাড়া বাসা থেকেও বের হন না। এখন তার জগৎজুড়ে স্বামী এবং অপেক্ষা সন্তানের জন্য। পূর্ণিমা ঢাকার চলচ্চিত্রে পরিপূর্ণ নায়িকা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছিলেন। অল্প বয়সে সিনেমায় আসার পর প্রতিষ্ঠার জন্য প্রচণ্ড সংগ্রাম করতে হয় তাকে। একসময় সাফল্য আসে। গ্ল্যামার, সময় সচেতনতা, অভিনয় এবং শিল্পীসুলভ আচার-আচরণের কারণে নির্মাতাদের কাছে বিশ্বস্ত হয়ে ওঠেন তিনি। জনপ্রিয়তা, যশ, খ্যাতি এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার মতো রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতিও অর্জন করেন।

সাহিত্যনির্ভর চলচ্চিত্র বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘শাস্তি’ ও ‘সুভা’, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘রাক্ষুসী’, বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের ‘মেঘের পরে মেঘ’ ছবিগুলোতে দুর্দান্ত অভিনয় করে যেমন পেয়েছেন অভিনেত্রী হিসেবে সুনাম, তেমনি মতিউর রহমান পানুর ‘মনের মাঝে তুমি’ ছবির জন্য পেয়েছেন আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা। আর কাজী হায়াতের ‘ওরা আমাকে ভাল হতে দিলো না’ ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। পাশাপাশি মান্না ও রিয়াজের সঙ্গে অসংখ্য হিট সুপারহিট ছবি তো আছেই। ব্যক্তিজীবনে অনেকটাই আত্মকেন্দ্রিক পূর্ণিমা কাজের বাইরে নিজেকে নিয়েই থাকতে পছন্দ করেন। নিজস্ব এই ভুবনের সঙ্গে কাউকে সম্পৃক্ত করেন না। এখন সঙ্গে স্বামী রয়েছেন। স্বামী-সংসার নিয়েই তার বর্তমান। অতীত নিয়ে ভাবতে চান না, ভবিষ্যৎটা ছেড়ে দিয়েছেন সৃষ্টিকর্তার কাছে। আপাতত কোনো কাজ নয়।

নিজের অভিনীত ‘লোভে পাপ পাপে মৃত্যু’ ছবির মুক্তির বিষয়টি তার অজানা নয়। বিশ্ব ভালবাসা দিবসে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে জেনে বেশ ভাল লাগা অনুভব করছেন তিনি। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে আশাবাদ। আশাবাদী মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘ছায়া-ছবি’ নিয়েও। তবে ইফতেখার আহমেদ ফাহমির ‘টু বি কন্টিনিউড’ ছবির খবর জানেন না। শুধু বললেন, কাজ করতে করতে ক্লান্ত। এখন বিশ্রাম নিচ্ছি। স্বামী সংসার নিয়েই সময় কাটছে। মাতৃত্বের স্বাদ গ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমি জানি, নারী জীবনের সার্থকতা মাতৃত্ব। তবে যেহেতু আমার পরিচয় একজন শিল্পী, সেহেতু বিশ্ব ভালবাসা দিবসে দর্শকদের ভালবাসা আমার কাম্য। আমি চাই দর্শকরা যেন তাদের পূর্ণিমাকে বঞ্চিত না করেন। ভুলে না যান। আর চাইবো দোয়া। আমি এবং আমরা যেন ভাল থাকি এটাই আমার প্রত্যাশা। কামনা সবাই ভাল থাকুক।