শাহজালাল ব্যাংক কর্মকর্তাসহ তিন জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

0
35
Shajalal Bank + ACC
শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক ও দুদকের লোগো
Shajalal Bank + ACC
শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক ও দুদকের লোগো

ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ২৭ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ব্যাংকের সাবেক এসএভিপি ও গার্মেন্টসের মালিকসহ তিন জনের বিরুদ্ধে করা মামলার চার্জর্শিট দাখিলের অনুমোদন দিল দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুন বাগিচায় কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের বৈঠকে এ মামলার চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেওয়া হয় বলে নিশ্চিত করেন কমিশনের নির্ভরযোগ্য সূত্র।

মামলায় আসামীরা হলেন, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক সিনিয়র এ্যসিস্টেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ হাসান ইমাম, মেসার্স মিশা নীট অয়্যারস্ নামক গার্মেন্টসের মালিক মো. সোহেল ইসলাম এবং মো. মুজিবর রহমান।

মামলার এজহার সুত্রে জানা যায়, মামলার প্রধান  আসামী মো. সোহেল ইসলাম নারায়নগঞ্জের ফতুল্লার বিসিক শিল্প নগরী এলাকায় মেসার্স মিশা নীট অয়্যারস্ নামে একটি ভুয়া গার্মেন্টস খোলে। এই প্রতিষ্ঠানের পোশাক উৎপাদন  ও সুতা আমদানির  নামকরে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের নারায়নগঞ্জ শাখা থেকে বিভিন্ন সময়ে ২৭ লাখ টাকা ঋণ নেয়। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি কোনো প্রকার পোশাক উৎপাদন ও সুতা আমদানি করেনি বলে দুদকের তদন্তে  প্রমাণিত হয়। অন্যদিকে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার পর তা পরিশোধ না করলেও অভিযুক্ত ব্যাংক কর্মকর্তা যাচাই-বাচাই না করে প্রতিষ্ঠানটিকে ক্রমাগত ঋণ প্রদানে অব্যহত থাকে।

দুদক সূত্র জানায়, আসামিদের বিরুদ্ধে  এ ঋণ জালিয়াতির অভিযোগ আসলে প্রাথমিক অনুসন্ধান করে দুদক। অনুসন্ধানে তাদের পরস্পর যোগসাজসে ঋণ জালিয়াতির বিষয়টি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হলে দুদক বাদি হয়ে ২০১২ সালের ৬ নভেম্বর রাজধানীর মতিঝিল থানায় একটি মামলা (মামলা নং ১৩) দায়ের করে। পরে  মামলাটি তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে দন্ডবিধির ৪০৯/১১৯ এবং ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ৫(২) ধারায় চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেয় কমিশন।

এইউ নয়ন