খেতে মজা মিক্সড ভর্তা

0
36
Vorta

Vortaএকটা সবজির ভর্তা খাওয়া হয়নি এমন মানুষ নেই বললেই চলে। একসাথে দুই থেকে তিনটা সবজির ভর্তা বানানো হলে খেতে কেমন হবে? নিশ্চয় মজাদার! মিক্সড ভর্তা কিভাবে বানাবেন তা জেনে নিন অর্থসূচকের পক্ষ থেকে।

আলু-টমেটো ভর্তা

উপকরণ: আলু, টমেটো, পেয়াজ কুচি, শুকনা মরিচ ভাজা, লবণ, সরিষার তেল।

যেভাবে বানাবেন:আলু এবং টমেটো সিদ্ধ করে নিতে হবে। শুকনা মরিচ তেলে ভেজে রাখতে হবে। পেয়াজ কুচি তেলে ভেজে নিলে ভালো হয়। সিদ্ধ আলু ভালোভাবে মেখে নিতে হবে। আর একটা পাত্রে টমেটো মেখে নিতে হতে। এবার শুকনা মরিচ ভাজা লবণ দিয়ে পিশে নিতে হবে। এখন একটু সরিষার তেল দিয়ে শুকনা মরিচ এবং পেয়াজ ভাজা ভালোভাবে মেখে নিতে হবে। ফাইনালি আলু এবং টমেটো মসলার সাথে একসাথে মিশিয়ে মেখে নিতে হবে। তৈরি হয়ে গেল আলু টমেটোর মজাদার ভর্তা। পরিবেশন করুন গরম ভাতের সাথে। শীতের দিনে ঠাণ্ডা ভাত দিয়ে খেতেও মজাদার এই ভর্তা।

আলু-বেগুন ভর্তা

উপকরণ: আলু, টমেটো, পেয়াজ কুচি, শুকনা মরিচ ভাজা, লবণ, সরিষার তেল।

যেভাবে বানাবেন:আলু সিদ্ধ করে নিতে হবে। আলু আলাদা পাত্রে ভলোভাবে মেখে নিতে হবে।  আর বেগুন পুড়িয়ে নিতে হবে। পোড়ানো বেগুনের খোসা ফেলে দিতে হবে। এখন এই বেগুন আলাদাভাবে মেখে নিতে হবে। এখন পেয়াজ ভাজা, শুকনা মরিচ ভাজা এবং সরিষার তেল ও লবণ একসাথে মিক্সড করতে হবে। এবার এর মধ্যে আলু ও বেগুন মাখা একসাথে করে মেখে নিতে হবে। হয়ে গেল ভিন্ন স্বাদের মিক্সড ভর্তা পরিবেশন করুন ইচ্ছামত।

লাউয়ের খোসা ভর্তা
উপকরণ: লাউয়ের খোসা ৩ কাপ, কাঁচামরিচ ৪-৫টি, ধনেপাতা, মাঝারি আকারের একটি পেঁয়াজ কুচি, সরিষার তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমত।

যেভাবে বানাবেন: লাউয়ের খোসা ও কাঁচামরিচ ধুয়ে পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে। এরপর কড়াইতে সরিষার তেল দিয়ে একটু গরম হলে তাতে লাউয়ের খোসা, কাঁচামরিচ, পেয়াজ কুচি ভেজে নিতে হবে। এবার লাউয়ের খোসা, কাঁচামরিচ, পেঁয়াজ কুচি, ধনেপাতা সব একসঙ্গে পাটায় মিহি করে বেটে নিন। হয়ে গেল মজার লাউয়ের খোসা ভর্তা।