বিএনপির শীর্ষ নেতাদের জামিন বহাল

0
64
bnp

bnpদুই মামলায় বিএনপির চার শীর্ষ নেতার জামিন বাতিল চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আুপিল বিভাগ। এর ফলে বিএনপি নেতাদের ওই জামিন আপিল বিভাগেও বহাল থাকলো। এর আগে হাইকোর্ট দলটির এই চার শীর্ষনেতার জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছিলেন।

রোববার প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ ওই আবেদন খারিজ করে দেন।

জামিনপ্রাপ্ত নেতারা হলেন- ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, রফিকুল ইসলাম মিয়া ও এম কে আনোয়ার ও শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস।

রাষ্ট্রপক্ষে আবেদন খারিজের আবেদন করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সোহরাওয়ার্দী ও আদালতে আসামিপক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এজে মোহাম্মদ আলী।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সোহরাওয়ার্দী অর্থসূচককে জানান, বিএনপির চার নেতার জামিনের বিরুদ্ধে আমরা আপিল বিভাগে গিয়েছিলাম। আদালত হাইকোর্টের জামিনাদেশ বহাল রেখেছেন।

উল্লেখ্য, বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট গত ৮ নভেম্বর ৭২ ঘণ্টার হরতাল ডাকার পর ওই চার নেতাকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের ৫ নভেম্বরের হরতালে রাজধানীর কমলাপুরে হাতবোমা বিস্ফোরণ, পুলিশের ওপর হামলা এবং ২৪ সেপ্টেম্বরে মতিঝিলে আইডিয়াল স্কুল ও কলেজের সামনে গাড়ি ভাঙচুরের দুই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

এরপর গত ২১ জানুয়ারি বিচারপতি নিজামুল হক ও মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের বেঞ্চ এই দুই মামলায় তাদের জামিন দেন। তাদের বিরুদ্ধে আরও তিনটি করে মামলা রয়েছে। যার দু’টিতে সবাই হাইকোর্ট থেকে গত ২৬ জানুয়ারি জামিন পেয়েছেন।

গত বছরের ৫ মে মতিঝিলে হেফাজত ইসলামের তান্ডবের পর মতিঝিল থানায় ওই দুটি মামলা দায়ের করা হয়। ওই ঘটনার উস্কানির অভিযোগে বিএনপির এই নেতাদের গত ২৬ ও ২৯ ডিসেম্বর গ্রেপ্তার দেখানো হয়। হেফাজতকে উস্কানির অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা রয়েছে।

ব্যারিস্টার মওদুদের সহযোগী আইনজীবী ব্যারিস্টার মো. এহসানুর রহমান বলেন, মামলায় অভিযুক্ত শিমুল বিশ্বাস ইতোমধ্যে নিম্ন আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। আমরা আশা করছি বাকিরাও মুক্তি পাবেন।

এমআর