গর্ভের শিশু গুলিবিদ্ধ: আরও তিন আসামি গ্রেপ্তার

Arrest
কারাগারের প্রতীকী ছবি

মাগুরায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সহিংসতায় গর্ভের শিশু গুলিবিদ্ধ এবং একজন নিহত হওয়ার ঘটনায় আরও তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া আসামিরা হলেন- লিটন, ফরিদ ও মিল্টন।

Child in DMC
মেডিকেলের বেডে দেওয়ার পর মায়ের পেটে গুলিবিদ্ধ সেই শিশুর হাসি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ডিবি পুলিশের ওসি ইমাউল হক জানান, আজ সোমবার সকালে মাগুরার শালিখা উপজেলার কাদিরপাড়া গ্রাম থেকে ওই মামলার ১১ নম্বর আসামি লিটনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে গতকাল রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে সদর উপজেলার আলমখালী এলাকা থেকে মামলার ৬ নম্বর আসামি ফরিদ ও ১২ নম্বর আসামি মিল্টনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা দুজনই ঢাকা থেকে একটি বাসে ঝিনাইদহের দিকে যাচ্ছিল।

এনিয়ে মামলার ১৬ আসামির মধ্যে ৯ জনকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Child in Medical
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিসিৎসাধীন মায়ের পেটে গুলিবিদ্ধ শিশু।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ জুলাই মাগুরা শহরের দোয়ার পাড় এলাকায় জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ভূঁইয়ার সাথে মাগুরা শহরের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পিওন মোহম্মদ আলীর সমর্থকদের সাথে সংঘর্ষ হয়। এসময় গুলিতে নিহত হন মমিন ভূইয়া নামে একজন। গর্ভস্থ শিশুসহ গুলিবিদ্ধ হন নাজমা বেগম নামে এক গৃহবধূ। ২৬ জুলাই নিহত মমিনের পুত্র রুবেল মাগুরা সদর থানায় ১৬ জনকে আসামি করে হত্যাসহ বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করেন।