উর্ধমুখী ধারায় চতুর্থ সপ্তাহ

0
68

Turnover_300114পুঁজিবাজারের নতুন জোয়ারে বেড়েই চলেছে মূল্য সূচক। পর পর চার সপ্তাহ সূচক বেড়েছে এ বাজারে। গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জর (ডিএসই) ব্যাপকভিত্তিক মূল্যসূচক প্রায় ৫০ পয়েন্ট বেড়েছে। তবে উর্ধমুখী বাজারেও গত সপ্তাহে লেনদেন সামান্য কমেছে।

স্বাভাবিক পুঁজিবাজারের মত সামান্য উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে গত সপ্তাহের লেনদেন।বাজার বিশ্লেষকরা এ ধারাকে খুবই ইতিবাচক মনে করছেন।

গত সপ্তাহে বাজার উন্নয়নেরও বেশ কিছু উদ্যোগ ছিল। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি চালু করা শরীয়াহ সূচক নিয়ে ইসলামী ধারার আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে বৈঠক করেছ।এছাড়া মার্চেন্ট ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাত করে কিছু প্রস্তাব দিয়েছে।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ৬০৯ কোটি টাকা মূল্যের শেয়ার।যা আগের সপ্তাহে ছিল ৩ হাজার ৬৯৮ কোটি টাকা।এক সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন ৯৮ কোটি টাকা বা দুই দশমিক ৪১ শতাংশ কমেছে।দৈনিক গড় লেনদেন ছিল ৭৩৯ কোটি টাকা থেকে ৭২১ কোটি টাকায় নেমেছে।

গত সপ্তাহের পুঁজিবাজার ব্যাংক-বিমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের উপর ভর করে উত্থান-পতনের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে।দর বাড়ার শীর্ষ থাকা শেয়ারের মধ্যে মৌলভিত্তির প্রতিষ্ঠানগুলো ছিল অআধিক্য ছিল।

সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪ হাজার ৭০২ পয়েন্ট থাকলেও শেষ দিনে সূচক বেড়ে ৪ হাজার ৭৫৩ পয়েন্ট দাঁড়ায়।সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ১ দশমিক ০৭ শতাংশ।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইএক্স সূচক বাড়লেও কমেছে ডিএসই ৩০ সূচক।এই সূচক কমেছে ৩ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট।সপ্তাহের শুরুতে ১ হাজার ৬৬৪ পয়েন্ট দিয়ে শুরু হলেও সপ্তাহের শেষ দিনে এমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬৬০ পয়েন্ট।