ইসির ৭ কর্মকর্তার পদোন্নতি অবৈধ ও বাতিল

0
26
EC_Sec

ইলেকশন কমিশননির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের সাত কর্মকর্তার পদোন্নতি অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। গতকাল বিকেলে ২০০৩ সালের একটি রিটের ভিত্তিতে এ আদেশ দেয় হাইকোর্ট।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের আইন শাখা থেকে জানা যায়, ২০০৩ সালে ইসি সচিবালয় ও মাঠ পর্যায়ের ৭ কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেওয়া হলে মাঠ পর্যায়ের এক কর্মকর্তা পদোন্নতি অবৈধ চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন।

ইসি সূত্র জানায়, ২০০৩ সালে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় একজন কর্মকর্তাকে উপ-সচিব এবং ছয়জন কর্মকর্তাকে সিনিয়র সহকারি সচিব হিসেবে পদোন্নতি দেয়। তৎকালীন পঞ্চগড় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বজলুর রহমান এ পদোন্নতি চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। যার রিট পিটিশন নং ৪৯৪২/০৩। এতে ইসি সচিব, পিএসসি, ইসির সহকারি সচিব (প্রশাসন) ও পদোন্নতি প্রাপ্ত সাত কর্মকর্তাসহ মোট ১৩ জনকে বিবাদি করা হয়। দফায় দফায় রিটের ৭২টি শুনানি শেষে হাইকোর্ট এ কর্মকর্তাদের পদোন্নতি অবৈধ ও বাতিল বলে ঘোষণা করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসির আইন শাখার কর্মকর্তারা জানান, এ রায়ের বিরুদ্ধে আপলি করা হবে। তাই এখন কিছু বলা যাচ্ছে না।

পদোন্নতি অবৈধ ঘোষিত কর্মকর্তারা হলেন- উপ-সচিব আবুল কাশেম, সিনিয়র সহকারি পদে ফজলুল হক, সামছুদ্দিন আহমেদ, মোস্তফা ফারুক, ফরহাদ আহমেদ খান, আব্দুল বাতেন ও তারেক চন্দ্র গায়েন।

এদের মধ্যে ফজলুল হক ও সামছুদ্দিন আহমদ অবসরে যান এবং তারেক চন্দ্র গায়েন স্বেচ্ছায় অবসরে যান। অন্যরা ইসি সচিবালয়ে কর্মরত রয়েছেন।