কার্টিজে কালি নয়, পানিতেই প্রিন্ট হবে ডকুমেন্ট

0
86

Water_Printerশিরোনামটি দেখে অনেকেই চমকে উঠতে পারে। এও কী সম্ভব। মাথা খারাপ নয় তো? না, আপনি বা আমি-আমাদের কারো মাথা খারাপ নয়। আসলে মাথা এলোমেলো করে দেওয়ার মত সংবাদটি এসেছে চীন থেকে। সে দেশের একদল গবেষক বিশেষ ধরনের কাগজ তৈরি করেছেন যে কাগজে প্রিন্ট দিতে প্রিন্টারে কালি প্রয়োজন হয় না। পানিই যথেষ্ট প্রিন্টের জন্য। খবর ডিসকোবারি নিউজ ও খালিজ টাইমসের।

চীনের চাংচুনের জিলিন ইউনিভার্সিটির গবেষকরা আবিষ্কার করেছেন বিষ্ময় জাগানিয়া ওই প্রযুক্তি। তাদের দেওয়া তথ্যমতে, ওই বিশেষ কাগজে ছাপা শব্দগুলো এক দিন স্থায়ী হবে। এরপর আবার ওই কাগজ ব্যবহার করা যাবে।

গবেষক দলের প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়টির রসায়নের অধ্যাপক সিন ঝাং বলেন, ‘যতবারই আপনি প্রিন্ট করবেন প্রতিবারই একে নতুনের মতো দেখাবে।’ তিনি জানান, ‘তারা বাণিজ্যিকভাবে সহজলভ্য ইংকজেট প্রিন্টার ব্যবহার করেই এ প্রিন্ট দিতে পারছেন। তারা কার্টিজকে পানি দিয়ে পূর্ণ করে আবার প্রিন্টারে বসিয়ে দিয়েছেন। এরপর স্বাভাবিক প্রিন্টিং প্রক্রিয়া অনুসরণ করেই প্রিন্ট দেওয়া হয়েছে।

আসলে প্রিন্টের সব জাদু কাগজে।বিশেষায়িত কাগজে শুধু পানি দিয়েই প্রিন্ট দেওয়া যায় না, এ কাগজ বার বার ব্যবহার করা যায়। আর প্রতিবারই নতুন কাগজের মত প্রিন্ট আসবে। ফলে খরচও অনেক কম পড়ে। এ ক্ষেত্রে কাগজ তৈরির জন্য এর ওপর বিশেষ এক ধরনের আবরণ দেওয়া হয়েছে; যার ওপর পানি কাজ করে। ছাপা হরফগুলো নীল, গোলাপি, সোনালি যেকোনো রঙের হতে পারে।

তবে নানা রঙের প্রিন্ট হলেও এ কাগজে কালো প্রিন্ট দেওয়া যায় না।বিষয়টি নিয়ে কাজ করছেন গবেষক দল। বিশ্বখ্যাত কম্পিউটার প্রতিষ্ঠান এইচপি’র গবেষণা দলের সাবেক সদস্য অধ্যাপক সিন ঝাং বলেন, আমাদের পরবর্তী লক্ষ্য কাগজটিকে কালো রঙে প্রিন্টের উপযোগী করা।