স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন

0
66

Dudakদুর্নীতির অভিযোগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাঁচ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা কাজ না করে প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ ও ভুয়া প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ দিয়ে রাষ্ট্রীয় সম্পদের ক্ষতি করেছেন। ভুয়া ও জাল বিল-ভাউচার তৈরি,স্পট কোটেশন (তাৎক্ষণিক দরপত্র) আহ্বান ও ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে কার্যাদেশ দিয়ে আত্মসাত করেছেন ২৭ লাখ ৩৭ হাজার ২৯ টাকা।

বুধবার রাজধানীর সেগুন বাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের নিয়মিত বৈঠকে এ মামলার চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেওয়া হয় বলে জানান কমিশনের নির্ভরযোগ্য সূত্র।

মামলায় স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরোর প্রধান আনোয়ারুল ইসলামসহ বাকী যে চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে তারা হলেন, স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরোর মিডিয়া ডেভেলপমেন্ট অফিসার আবু হানিফা, সহকারী প্রধান মতিয়ার রহমান ও শরিফুল ইসলাম এবং একই প্রতিষ্ঠানের হিসাব রক্ষক নজরুল ইসলাম।

দুদক সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরোর অধীনে বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় গর্ভ ও প্রসবকালীন ৫টি বিপদ চিহ্ন প্রদর্শন, প্রতিরোধ ও ডায়রিয়া প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে জারি গানের প্রকল্প হাতে নেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। কিন্তু অভিযুক্ত কর্মকর্তারা পরস্পর যোগসাজসে সারাদেশে কোনো জারি গানের অনুষ্ঠান না করে ভূয়া ভাউচার প্রদর্শনের মাধ্যমে প্রকল্পটির সম্পূর্ণ বাজেট ১৬ লাখ ১৬ হাজার ১৫ টাকা আত্মসাৎ করে।

সূত্র আরও জানায়, অভিযুক্তরা একই অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য সচেনতা বিষয় বিভিন্ন কাজের জন্য জাল জালিয়াতির মাধ্যমে বিল ভাউচার প্রস্তুত, স্পট কোটেশন আহ্বান, তুলনামূলক বিবরণী প্রস্তুত ও ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে কার্যাদেশ প্রদান করে সরকারের ১১ লাখ ২১ হাজার ১৪ টাকা ক্ষতিসাধনসহ মোট ২৭ লাখ ৩৭ হাজার ২৯ টাকা আত্মসাৎ করে ।

রাজধানীর বনানী থানার মামলা নং ১৮, ১২.০২.২০১৩ অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের উপ-পরিচালক নিলুফার ইয়াসমিন মামলাটি তদন্ত করেন।

এইউ নয়ন