শিরীন শারমিন স্পিকার

0
125
speaker-shirin-shermin

speaker-shirin-sherminদশম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের শুরুতে সংসদে উপস্থিত মন্ত্রী ও সাংসদদের সমর্থনে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী স্পিকার, ফজলে রাব্বি মিয়া ডেপুটি স্পিকার এবং সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী সংসদ উপনেতা নির্বাচিত হয়েছেন। সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলীর সভাপতিত্বে বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় দশম জাতীয় সংসদের এই প্রথম অধিবেশন শুরু হয়।

জানা যায়, এর আগে রংপুর-৬ (পীরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বুধবার সকালে জাতীয় সংসদে স্পিকারের কক্ষে তিনি নিজেই শপথ গ্রহণ করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

সংসদ সচিবালয়ের গণসংযোগ বিভাগের পরিচালক জয়নাল আবেদীন অর্থসূচককে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুর-৬ আসনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরে প্রধানমন্ত্রী আসনটি ছেড়ে দিলে তা শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

ওই আসনের উপ-নির্বাচনে মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র যাচাইয়ের পর কোনো আর প্রার্থী না থাকায় একক প্রার্থী হিসেবে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। এরপর নির্বাচন কমিশন সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক রংপুর-৬ আসনের এমপি হিসেবে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর নামে গেজেট প্রকাশ করেন।

এর আগে মঙ্গলবার সংসদীয় দলের সভায় দশম জাতীয় সংসদের স্পিকার হিসেবে শিরীন শারমিন চৌধুরীকে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ। সভায় স্পিকার হিসেবে শিরীন শারমিন চৌধুরীর নাম প্রস্তাব করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, তাকে সমর্থন দিয়েছেন দলের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

শিক্ষা জীবনে অসাধারণ কৃতিত্ব দেখানো শিরিন শারমিনের জন্ম ১৯৬৬ সালে ৬ অক্টোবর ঢাকায়। তার বাবা রফিকউল্লাহ চৌধুরী ছিলেন স্বাধীনতার পর প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একান্ত সচিব। তার মা অধ্যাপক নাইয়ার সুলতানা বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের সদস্য ছিলেন। তার নানা সিকান্দার আলী ছিলেন পূর্ব পাকিস্তান হাই কোর্টের বিচারপতি।

১৯৮৩ সালে ঢাকা বোর্ড থেকে মানবিক বিভাগে সম্মিলিত মেধাতালিকায় প্রথম স্থান অধিকার এসএসসি পাস করেন শিরিন। দুই বছর পর একই বোর্ড থেকে মানবিক বিভাগে সম্মিলিত মেধাতালিকায় দ্বিতীয় স্থান নিয়ে এইচএসসি উত্তীর্ণ হন তিনি। ১৯৮৯ সালে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম স্থান নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এল এল বি (অনার্স) এবং ১৯৯০ সালে ওই স্থান অটুট রেখেই এলএলএম ডিগ্রি নেন শিরিন শারমিন।

এরপর উচ্চ শিক্ষার জন্য কমনওয়েলথ স্কলারশিপ নিয়ে যুক্তরাজ্যে যান তিনি। ২০০০ সালে এসেক্স ইউনিভার্সিটি ‘রাইট টু লাইফ’ অভিসন্দর্ভের জন্য তিনি পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

এএস