মুক্তি পেলেন হান্নান শাহ

0
79
hannan-shah

হান্নান শাহআটক হওয়ার  প্রায় দুই মাস পর জামিনে মুক্তি পেলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) হান্নান শাহ।

রোববার বেলা পৌনে ১১টায় গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগার থেকে বেরিয়ে আসেন  হান্নান শাহ।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারের জেল সুপার আবদুর রাজ্জাক জানান, গতকাল মঙ্গলবার রাতে হান্নান শাহের জামিনের কাগজ কাশিমপুর কারাগারে পৌঁছায়। সেগুলো যাচাই-বাছাই শেষে আজ তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়।

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায়  আ স ম হান্নান শাহ বলেন,  আ.লীগ জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে কৃত্রিমভাবে সরকার গঠন করেছে। তারা জনগণের স্বার্থরক্ষায় ব্যর্থ, জনগণের বড় সম্পদ তারা লুট করেছে। কৃত্রিম কোনো জিনিসই টেকে না। তাই এ বনস্পতি সরকার যত দ্রুত বিদায় হয় ততই মঙ্গল। এক্ষেত্রে তাদের শুভ বুদ্ধির উদয় হলেই ভাল।

সরকার তাদের নীল নকশার নির্বাচন বাস্তবায়নের জন্য আমাদের গ্রেপ্তার করিয়েছেন সরকারের প্রতি এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সব মামলায় বানানো। সরকার একটি বিশেষ উদ্দেশ্যে ৫ জানুয়ারির আগে আমাদের বন্দি করেছে। আমরা বলেছিলাম এই নির্বাচন প্রহসনের হবে। হয়েছেও তাই। এ কারণে সরকার যে নিরপেক্ষ নির্বাচনের কথা বলেছিল তা হয়নি। আমাদের কথাই সঠিক বলে প্রমাণিত হয়েছে।

এ সময় কারা ফটকে হান্নান শাহ স্ত্রী, ছেলে রিয়াজুল হান্নান, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান উদ্দিন সরকার, কালিয়াকৈর পৌর মেয়র মুজিবুর রহমানসহ বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায়।

ভাঙচুর, অগ্নি সংযোগ ও বিস্ফোরক আইনে মতিঝিল থানায় পাঁচটি এবং ভাটারা থানায় দায়ের করা একটি মামলায় পুলিশ গত ২৬ নভেম্বর হান্নান শাহকে গ্রেপ্তার করে। ২৮ নভেম্বর তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। পরদিন ওই কারাগার থেকে কাশিমপুর কারাগারের হাইসিকিউরিটি ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। মামলায় যুক্তিতর্ক শেষে গত ২৬ জানুয়ারি রোববার অভিযুক্তদের পক্ষে জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। ওই জামিনের আলোকে অন্য কোনো মামলায় আটকাদেশ না থাকায়  কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ।

এমআর