উদ্ভট সংসদের যাত্রা শুরু আজ

0
32

Shongshod-bdউদ্বোধনী অধিবেশনের মধ্য দিয়ে আজ বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করছে দশম জাতীয় সংসদ। বিরোধী দল হিসেবে সংসদে থাকছে জাতীয় পার্টি (জাপা) আর বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে প্রথম অধিবেশনে থাকবেন রওশন এরশাদ। এদিকে, দীর্ঘ ২২ বছর পর এই সংসদে থাকছে না বিএনপি।

প্রথমবারের মতো একই সঙ্গে সরকার ও বিরোধী দলে দ্বৈত অবস্থানে আছে জাতীয় পার্টি। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিৎ সেন গুপ্ত সম্প্রতি অর্থসূচককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, সরকার এবং বিরোধী দলের সমন্বয়ে যে মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়েছে- এটাকে কোয়ালিশন সরকার বলা যেতে পারে। যেহেতু এটা কোয়ালিশন সরকার নয় এবং  বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টি সংসদে থাকছে সেহেতু আইন অনুযায়ী দলটির সদস্যদের মন্ত্রী হওয়া গণতন্ত্র, সংবিধান ও সংসদীয় রাজনীতির শিষ্টাচার পরিপন্থী।

এদিকে, সরকারের মন্ত্রিসভায় অংশ নেওয়া বিরোধী দল জাতীয় পার্টির ভূমিকা কেমন হবে তা নিয়ে রয়েছে নানান কৌতূহল।

সংসদীয় রাজনীতিতে বিরোধী দলের অবস্থান হতে পারে দুই ধরনের- সম্পূর্ণ বিরোধিতা ও সহযোগিতামূলক বিরোধিতা। এর মধ্যে ঠিক কোন অবস্থানে থাকছে জাতীয় পার্টি তা স্পষ্ট নয়।

এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় স্পিকার পদে ড. শিরীন শারমিন, ডেপুটি স্পিকার পদে ফজলে রাব্বি মিয়া ও সংসদ উপনেতা হিসেবে সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

নানান অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়েও শেষ পর্যন্ত স্পিকার থাকছেন শিরীন শারমিন। দশম সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের নির্বাচন আপাতত অনুষ্ঠিত না হওয়ায় তার স্পিকারের পদ নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। কিন্তু শেখ হাসিনার ছেড়ে দেওয়া রংপুর ৬ আসনের উপ-নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় স্পিকার হতে আর কোনো বাধা নেই তার।

এছাড়া সংসদের কার্যপ্রণালীতেও কিছু পরিবর্তন আসছে। কোনো সংসদ সদস্য মারা গেলে কার্যদিবস মূলতবি রাখার রেওয়াজ থাকলেও এবারের সংসদে তা রাখা হচ্ছে না। রাষ্ট্রপতির ভাষণের আগে করা হচ্ছে বিউগল বাজানোর ব্যবস্থা। নিরাপত্তার দিক থেকেও আসছে কড়াকড়ি। এখন থেকে একটির বেশি মোবাইল ফোন নিয়ে সংসদে প্রবেশ করতে পারবেন না সংসদ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ।

সামনের সারির আসনগুলো নিয়ে সরকারি দল ও বিরোধীদলের মধ্যে দরকষাকষি হয়। এ নিয়ে আগে বেশ কযেকবার অপ্রীতিকর ঘটনাও ঘটেছে। এবার সামনের সারিতে বিরোধী দল কয়টি আসন পাবে, তা আলোচনা করে নির্ধারণ করা হচ্ছে।