বাদ হচ্ছে টেস্টে দুই স্তর প্রস্তাবনা তবে থাকছে ভারতের নতুন হুমকি

0
82
Sakib Al Hasan
সাকিব আল হাসান।

sakib_allটেস্ট ক্রিকেটকে ভাগ করার বিতর্কিত প্রস্তাবটি শেষ পর্যন্ত হয়তো বাদই পরছে। দুবাইয়ে শুরু হওয়া আইসিসির নির্বাহী কমিটির আজকের  সভায় আগের সংস্কার প্রস্তাবে সংস্কার করতে যাচ্ছে ভারত,অস্ট্রেলীয়া ও ইংল্যান্ডের ক্রিকেট বোর্ড।আর এটা হলে টেস্ট নিয়ে বাংলাদেশের যে উদ্বেগ আর অনিশ্চয়তা তার কিছুটা অবসান হবে।

তবে আইসিসিতে টেস্ট দলগুলো ভাগ করার প্রস্তাবনাটি না উঠলেও বাংলাদেশ ক্রিকেট আবার বেশ শক্ত হুমকির মুখে পরেছে।

ভারতের ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি শ্রীনিবাসন হুমকি দিয়েছেন তাদের দেওয়া সংস্কার প্রস্তাবের পক্ষে অবস্থান না নিলে ভারত  বাংলাদেশে অনুষ্ঠেয় এশিয়া কাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে আসবে না।

ভারতের নেতৃত্বে দেওয়া ওই সংস্কার প্রস্তাবটির বিরোধীতা করবে বলে আগেই জানিয়েছিলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এর পর সংস্থাটির সহ সভাপতি মোস্তফা কামালও ঘোষণা দেন দেন,  ওমন প্রস্তাব আইসিসিতে পাস হতে দেওয়া হবে না।

এছাড়া টেস্ট খেলুড়ে অন্যান্য দলও ওই প্রস্তাব মানতে নারাজ।সামগ্রিক ভাবে ওই তিন দেশে ক্রিকেট বোর্ড যখন দেখলো কেবল ক্রিকেট বিশ্ব নয়, আর্ন্তজাতিক বিভন্ন মহলেও তাদের ওই বিকৃত প্রস্তাবের বিরোধীতা হচ্ছে তখন তারাও কিছুটা নমনীয় হলো।

ক্রিকইনফোর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিউজিল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে ছাড়া টেস্ট খেলুড়ে বাকি পাঁচটি দেশই এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করার প্রস্তুতি নিয়েছে। এ অবস্থায় প্রস্তাবটা যে পাস করা যাবে না, সেটা আঁচ করেই বোধ হয় এতে সংশোধন আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ‘বিগ থ্রি’ নামে পরিচিত ক্রিকেট মোড়লেরা।

BCCI_nivason
ভারতের ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি শ্রীনিবাসন

এদিকে ক্রিকেট বিশ্বের ওপর একচ্ছত্র আধিপত্যের যে পরিকল্পনা ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া করেছে, সে জন্য আইসিসির সাতটি পূর্ণ সদস্য দেশের সম্মতি দরকার। তবে নানাবিধ প্রলোভন, আর্থিক সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েও সে সংখ্যার সম্মতি পেতে বেগ পেতে হচ্ছে। এই অবস্থায় বাংলাদেশের ক্রিকেট-সংশ্লিষ্টদের বারবার চাপ দিয়েও রাজি না করাতে পেরে  শ্রীনিবাসন খেলতে না আসার এই হুমকি দিলেন।

আনন্দবাজারে এ সংক্রান্ত এক  প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘গোটা পরিকল্পনা যার মস্তিষ্কপ্রসূত, সেই নারায়ণস্বামী শ্রীনিবাসন, মা মারা যাওয়ায় দুবাই আসতে পারেননি। তাঁর হয়ে বাংলাদেশের কর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন আইপিএল কর্তা সুন্দর রামন ও সচিব সঞ্জয় পটেল। বাংলাদেশ রাজি হচ্ছে না দেখে এবার চাপ দেওয়ার জন্য স্কাইপে শ্রীনিবাসনকে ডেকে আনা হয়। শ্রীনিবাসন একটা সময় উত্তেজিত হয়ে বলেন, আপনারা রাজি না হলে আমরা এ বছর বাংলাদেশে টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ খেলব না। এশিয়া কাপ থেকেও নাম তুলে নেব। দেখি, আপনারা কী করেন।’

দুই স্তরের টেস্ট ক্রিকেটের পরিকল্পনা ছাড়া আরও একটি পরিবর্তন আনা হয়েছে নতুন প্রস্তাবে। আইসিসির নতুন নির্বাহী কমিটির (এক্সকো) স্থায়ী সদস্যের সংখ্যা তিন থেকে বাড়িয়ে চার বা পাঁচে উন্নীত করা হতে পারে। তখন ভারত, ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আরও একটি বা দুটি দেশ এ কমিটিতে যোগ দিতে পারে।

নতুন এই প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের জন্য আইসিসির সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে জোর আলাপ-আলোচনাও চালিয়ে যাচ্ছে ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড।