সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

0
50
সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরী

mohiuddinঅবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের হওয়া দুদুকের মামলায় চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগরে সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এসএম আতাউর রহমান পরোয়ানা জারির এই আদেশ দেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পিপি মাহমুদুল হক বলেন, অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০০৭ সালে বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় মহিউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করে দুদক। মামলাটির কার্যক্রম দীর্ঘদিন স্থগিত থাকলেও সম্প্রতি আবারও শুনানি শুরু হয়। সোমবার নির্ধারিত দিনে হাজির না হওয়ায় আদালত আসামি মহিউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেয়।

এবিএম মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভুত সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপন করায় ২৬/২ এবং ২৭/১ ধারায় দুটি মামলা দায়ের করে দুদুক।

২০০৭ সালের ২ ডিসেম্বর অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২০০৯ সালের ৫ ফ্রেব্রুয়ারিতে  আদালতে অভিযোগ গঠন করা হয়। এরপর ৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণের পর হাইকোর্ট মামলাটির কার্যক্রম স্থগিত করেন।

২৮ লাখ ২৯ হাজার ২৬৪ টাকা সম্পদের তথ্য গোপন এবং এক লাখ ২৩ হাজার ৪৯১ টাকা জ্ঞাত আয় বর্হিভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০০৭ সালের ডিসেম্বরে এ মামলা করে দুদক।  পরের  বছর নভেম্বরে দুদকের উপ-পরিচালক মোজাম্মেল হোসেন খান আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

আজ আদালতে মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হবে এমন কোনো তথ্য তাকে জানানো হয়নি জানিয়েছেন এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী।

২০০৯ সালরে ৫ ফব্রেুয়ারি এ মামলায় মহিউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদালত।