কলেজে এক শিক্ষার্থীর জন্য তিন শিক্ষক

0
27
jhinaida

jhinaida jpgঝিনাইদহ-মাগুরা সম্মিলিত কলেজে বিজ্ঞান বিভাগ চালুর এক যুগ পর গত বছর একজন ছাত্র ভর্তি হয়েছে। ওই বিভাগে বর্তমানে তিনজন শিক্ষক ও একজন প্রদর্শক আছেন।

কলেজ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৪ সালে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী ফুরসন্ধী ইউনিয়নের টিকারী বাজারে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০২ সালে কলেজে বিজ্ঞান বিভাগ চালু করা হয়। এরপর শাহনাজ পারভিনসহ তিনজনকে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়। শিক্ষার্থী না থাকায় তিন শিক্ষকের মধ্যে দুজন অন্যত্র চলে যান। আর শাহনাজ পারভিন কলেজে আসা-যাওয়া করতে থাকেন। একপর্যায়ে তিনি এমপিওভুক্ত হন। কিন্তু বিভাগে শিক্ষার্থী না থাকায় কর্তৃপক্ষ তাঁর বেতন দীর্ঘদিন বন্ধ করে রাখে।

কলেজের কয়েকজন শিক্ষক জানান, চলতি বছর বিভাগে নিশিত বিশ্বাস নামের এক ছাত্র ভর্তি হওয়ার পর কর্তৃপক্ষ গত ফেব্রুয়ারি থেকে শাহনাজ পারভীনের বেতন চালু করে। পাশাপাশি ৩০ আগস্ট গণিতে শাওন বিশ্বাস ও রসায়নে শারমিন আক্তার নামের দুজন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়। এ ছাড়া একজন প্রদর্শক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বিভাগে আরও একজন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

বিভাগের একমাত্র শিক্ষার্থী নিশিত বিশ্বাস জানায়, শিক্ষকদের অনুরোধে সে এখানে ভর্তি হয়েছে। কিন্তু শিক্ষার্থী ভর্তি না হওয়ায় এবং শিক্ষক না থাকায় তার পড়ালেখা ঠিকমতো হচ্ছে না।

অধ্যক্ষ আনোয়ার হোসেন বলেন, বেশির ভাগ কলেজেই বিজ্ঞান বিভাগের এই অবস্থা। তাঁর কলেজের অবস্থাও ভালো নয়। তবে বিজ্ঞান বিভাগ না খুললে কলেজ টিকিয়ে রাখা যায় না। এ কারণে এই বিভাগ খুলতে হয়েছে। আর বিভাগ খুললেই ছাত্রছাত্রী না থাকলেও চার বিষয়ে চারজন শিক্ষক থাকতে হবে। তা না হলে যে ছাত্রটি ভর্তি হবে, তাকেও ধরে রাখা যাবে না। তাই তাঁরা শিক্ষক নিয়োগ দিচ্ছেন।

এআর