মেলায় ব্যাংকিং সেবায় সন্তুষ্ট ক্রেতা-বিক্রেতারা

0
65

BASIC-Bank-26.01.14বাণিজ্য মেলায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের আর্থিক লেনদেনের ঝুঁকি এড়াতে ব্যাংকিং সেবা দিচ্ছে ব্যাংকগুলো। আর এতে বেশ সন্তুষ্ট  ক্রেতা-বিক্রেতারা। ক্রেতাদের টাকা উত্তোলনে কয়েকটি ব্যাংক এটিএম বুথ স্থাপন করেছে। পাশাপাশি টাকা জমা দেওয়ার জন্য চালু রয়েছে পে-অর্ডার সেবা। অনেকেই মেলায় বেচা-কেনার অর্থ ব্যাংকের মাধ্যমেই তুলছেন ও জমা দিচ্ছেন।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, এবারের মেলায় রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সোনালী ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক ও জনতা ব্যাংকের পাশাপাশি রয়েছে বেসরকারি মালিকানাধীন ইসলামী ব্যাংক, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক ও ঢাকা ব্যাংকের সেবা। এসব ব্যাংকের বুথে অন্যান্য ব্যাংকের এটিএম কার্ড ব্যবহারের সুযোগও পাওয়া যাচ্ছে।

কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, মেলায় ব্যাংকের বুথ থাকায় কেনাকাটা করতে কোনো রকম ঝুঁকি নিতে হচ্ছে না তাদের।

রাজধানীর শ্যামলী থেকে মেলায় আসা শিহাবুর রহমান বলেন, কিছু কেনাকাটা করার পর টাকা শেষ হয়ে গেলেও ব্যাংকের এটিএম বুথ থাকায় সমস্যা হয়নি। বুথ থেকে টাকা তুলে বাকি কেনাকাটা সেরেছেন তিনি।

মেলায় ব্যাংকের প্যাভিলিয়নে প্রতিদিন সরাসরি টাকা জমা দেওয়ার সুযোগ থাকায় এবার নিশ্চিন্ত ব্যবসায়ীরাও।

যে কয়টি ব্যাংকে মেলায় সেবা দিচ্ছে তার মধ্যে টাকা জমা নেওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে জনতা ব্যাংক। মেলার দায়িত্বে থাকা ব্যাংকটির নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান বলেন, ব্যাংকিং সেবা প্রচারের জন্যই মেলাতে অংশ নেওয়া হয়েছে। তবে গ্রাহকদের নগদ টাকার ঝুঁকি এড়াতে মেলায় টাকা উত্তোলনের জন্য এটিএম বুথ রয়েছে।

আর ব্যবসায়ীদের ঝুঁকিরোধে অ্যাকাউন্ট পে সার্ভিস দেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে যাদের ব্যাংক হিসাব নাই তারাও এ সেবাটি জনতা ব্যাংক থেকে নিতে পারবেন।

এই সেবার অধীনে গত ১৫ দিনে প্রায় চার কোটি টাকা পে সার্ভিস দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ইসলামী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার ও প্যাভিলিয়ন ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম বলেন, গ্রাহকদের টাকা উত্তোলন ও জমা দেওয়া ছাড়াও সব ধরনের অ্যাকাউন্ট খোলার সুবিধা চালু রাখা হয়েছে।

গত ১৫ দিনে ইসলামী ব্যাংকের বুথ থেকে গ্রাহকেরা প্রায় ২৫ লাখের অধিক টাকা উত্তোলন করেছেন বলে জানান তিনি।

মেলায় ১০০ টাকার বিনিময়ে ছাত্র ছাত্রীদের জন্য স্কুল ব্যাংকিং সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

এ ছাড়াও মাত্র বিশ টাকার বিনিময়ে এমক্যাশ অ্যাকাউন্ট খোলা হচ্ছে। ডেবিট ক্রেডিট কার্ড ও লেনদেনে কোন চার্জ আদায় করা হচ্ছে না বলেও জানান দ্বায়িত্বরত এই কর্মকর্তা।

বেসিক ব্যাংকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক ও প্যাভিলিয়ন ইনচার্জ আবদুল আলী বলেন, হ্যামকোসহ বড় বড় কোম্পানিগুলো এ ব্যাংকে টাকা জমা দেয়। এছাড়া কুষ্টিয়া, খুলনাসহ ঢাকার বাইরের ব্যবসায়ীদের ব্যাংকিং সেবা দেওয়া হয় এখানে। ব্যাংকটিতে মেলা শুরুর দিন থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৭০ লাখের টাকা জমা নেওয়া হয়েছে এবং গ্রাহকরা এটিএম বুথ থেকে প্রায় ১০ লাখের ও অধিক টাকা উত্তোলন করেছে।

জেইউ/