বাণিজ্য শুল্ক কমানোর কথা ভাবছে সরকার: মুহিত

0
38
আবুল মাল আব্দুল মুহিত

আবুল মাল আব্দুল মুহিতসারা বিশ্বে বাণিজ্য প্রসারের লক্ষ্যে সরকার বাণিজ্য শুল্ক কমানোর কথা ভাবছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। একই সাথে ভবিষ্যতে সার্ভিস ট্যাক্স নামে নতুন শুল্ক পদ্ধতি আবিস্কারের কথাও জানান তিনি।

রোববার দুপুরে রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে আন্তর্জাতিক শুল্ক দিবস উপলক্ষে এনবিআর আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

তিনি বলেন, আগে রাজস্ব আহরণে বৃহৎ অংশই আসত শুল্ক বিভাগ থেকে। বিশ্ব বাণিজ্য প্রসারের ফলে আমরা শুল্ক বিভাগ থেকে কম রাজস্ব পাচ্ছি। তার চেয়ে অন্যান্য বিভাগ যেমন- আয়কর, ভ্যাট এগিয়ে গেছে। ভবিষ্যতে হয়তো সার্ভিস ট্যাক্সের মতো নতুন কোনো শুল্ক আবিস্কার করব। এমন হলে হয়ত আগামি ২৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে কাষ্টমস দিবস বলেই কিছু থাকবে না।

অর্থমন্ত্রী বলেন,‘শুল্ক আদায় আরও সহজ করতে কাস্টমস আইন সংশোধন করা হচ্ছে। আর এটা এখন প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে। এই আইনের প্রয়োগের মাধ্যমে কাস্টমস আদায় পদ্ধতি আরও সহজ ও কম সময়ে হবে।’

তিনি আরও  বলেন, শুল্ক দাতা যেন কাস্টমস আইন ও ব্যবস্থাপনা সহজে বুঝতে পারে সে জন্য  রাজস্ব প্রদান ও এর আইন-কানুন সহজে বোঝার জন্য কাস্টমস কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ করে তোলা হচ্ছে। এছাড়া কাস্টমস আদায়ে ঝুঁকি কমানো, মালপত্র ক্লিয়ারেন্স, নিরীক্ষা বিভাগও সহজে করা হচ্ছে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

গত ৫ বছরে রাজস্ব আদায় দ্বিগুণ হয়েছে  জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশ স্বাধীনের পর সব সরকারের মেয়াদে কাস্টমস আদায় খুড়িয়ে খুড়িয়ে বাড়লে বিগত ৫ বছরে এর পরিমাণ রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছেছে। যা বিগত বিএনপি সরকার মেয়াদের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ।

অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমদ বলেন, বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা সারা বিশ্বে মডেল, বিস্ময়, মিরাকেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। এর সকল প্রসংশার দাবিদার এনবিআর-কাস্টমস।

তিনি বলেন, দেশ বর্তমানে ম্যানপাওয়ার এক্সপোর্টের দিক দিয়ে পিছিয়ে  থাকলেও রেমিট্যান্স অনেক ভাল আসছে। কারণ, কাস্টমসে কোন ঝামেলা হচ্ছে না। আর সহজেই বিদেশ থেকে টাকা পাঠাচ্ছে প্রবাসীরা।ব্যবসায়ীরা সব সময় কাস্টমসের সঙ্গে সহযোগিতা করে চলতে চায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে কাস্টমস কর্মকর্তাদের আরো আন্তরিক হতে হবে।

রাজস্ব বোর্ডের সদস্য মো. নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন এ্যাটর্নী জেনারেল মাহবুবে আলম, রাজস্ব কমিশনার মাসুদুল কবির, ড. মোহম্মদ শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

এইউ নয়ন