হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি সরাতে সহজ শর্তে ঋণ চেয়েছেন ব্যবসায়ীরা

0
36

BFLLFIরাজধানীর হাজারীবাগ থেকে ট্যানারিগুলোকে সাভারের চামড়া  শিল্প নগরীতে সরিয়ে নিতে সহজ শর্তে দীর্ঘমেয়াদি ঋণ সুবিধা চেয়েছেন ব্যবসায়ীরা। রোববার এক অনুষ্ঠানে স্বল্প সুদে ঋণসহ আরও কিছু সুবিধা দাবি করেছেন বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএফএলএলএফইএ) নেতারা । এসব দাবির মধ্যে রয়েছে-কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার (সিইটিপি) নির্মাণ ত্বরান্বিত করা, দ্রুততম সময়ে আরও ২০০ একর জমি অধিগ্রহণ, রপ্তানি প্রণোদনা ও ব্যাংকিং প্রক্রিয়া সহজীকরণ।

রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলে অনুষ্ঠিত ‘চামড়া শিল্প নগরীর উন্নয়ন, ট্যানারি স্থানান্তর এবং ফুটওয়্যার ও লেদার গুডস শিল্পের উন্নয়ন ত্বরান্বিতকরণ’ শিরোনামের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, “জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তান সরকারের সামনে যে ৬ দফা দাবি উপস্থাপন করেছিলেন তাতে চারটি শিল্পকে গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে সেগুলোকে এগিয়ে নেওয়ার দাবি জানিয়েছিলেন। চামড়া শিল্প ছিল তার মধ্যে অন্যতম। তাই বর্তমানে আওয়ামী লীগ সরকারও এই শিল্পকে এগিয়ে নিতে অগ্রাধিকার দিয়েছে”।

চামড়া শিল্পে সরকার আড়াই শ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিয়েছে এবং পর্যায়ক্রমে আরও ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, “চামড়া শিল্পকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারলে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রে ব্যাপক সফলতা পাওয়া যাবে এবং বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির ক্ষেত্রেও এই শিল্প গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে”।

সমুদ্রসীমা অর্জনে সফলতা লাভ করায় শেখ হাসিনার প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, “এ বছরের মধ্যেই ভারতের সাথে সমুদ্র বিরোধের ক্ষেত্রে আমরা সফলতা পাব। বাংলাদেশের এই সমুদ্রসীমা যথাযথভাবে ব্যবহার করতে পারলে আমাদের অর্থনীতি অনেক এগিয়ে যাবে”।

বিদেশি শক্তি সহিংসতাকে ভর করে রাজনৈতিক পরিবর্তন আনতে চায় এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, “বাংলাদেশের বহুমাত্রিক সম্পদ নিজেদের দখলে নেওয়ার জন্যই আন্তর্জাতিক চক্রান্ত বাংলাদেশে হানাহানির রাজনীতি উসকে দেওয়ার চেষ্টা করছে”।

বিদেশি এই চক্রান্ত মোকাবেলায় ব্যবসায়ীদেরকে সতর্ক থাকারও আহ্বান জানান মন্ত্রী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নুর তাপস বলেন, “গণতন্ত্রের জন্য সংবিধান হচ্ছে মূল রক্ষামন্ত্র। এই সংবিধানের সুরক্ষার জন্যই নানান প্রতিকূলতার মাঝে আমরা বর্তমান অবস্থায় এসে পৌঁছেছি”।

অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে এমন আশা ব্যক্ত করে তিনি বলেন, “বর্তমানে বাংলাদেশের মাথাপিছু আয়  ১০৪৪ মার্কিন ডলার। আমরা সবাই আর একটু ধাক্কা দিয়ে মাথাপিছু আয় ১৫০০ মার্কিন ডলারে উন্নীত করতে  পারলেই মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ”।

এজন্য শিল্পোদ্যোক্তা, শিল্প কারখানা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ক্ষুদ্র ও মাঝারি বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানসহ সবাইকে নিজ জায়গা থেকে কাজ করার আহ্বান জানান।

আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার এম আবু তাহেরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শিল্প সচিব মাইনউদ্দিন আব্দুল্লাহ, বিসিক চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর শিকদার প্রমুখ।

বক্তারা চামড়া শিল্প কারখানা হাজারীবাগ থেকে সাভারে স্থানান্তরের ক্ষেত্রে কতিপয় অন্তরায় ও দাবি তুলে ধরেন।

 

এসএসআর