প্রজন্মের আহ্বান : সেভ দ্য ক্রিকেট, সেভ দ্য টাইগার্স

0
142
Tiger

Tigerপ্রতিবাদ আর দাবি আদায়ের আন্দোলনে আবারো উত্তাল শাহবাগ। লক্ষ্য- বাংলাদেশের গৌরবময় ক্রিকেটকে রক্ষা করা। সাকিব-সোহাগরা আরও অসংখ্য রেকর্ড গড়ে টেস্ট ক্রিকেটকে সমৃদ্ধ করবে।

বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেট ধ্বংসের ত্রি-দেশীয় চক্রান্ত রুখে দিতেই শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় শাহবাগে জড়ো হতে থাকে বাংলাদেশের অগণিত টাইগার ভক্তরা।ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড হাতে দলে দলে অসংখ্য শিশু, তরুণ, বৃদ্ধ, ছাত্র, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী, গৃহিনী, দোকানদার, রিক্সাওয়ালাসহ নানা  পেশা ও শ্রেণির মানুষ উপস্থিত হন প্রতিবাদ জানাতে।

জাতীয় জাদুঘরের সামনে থেকে জাতীয় গণগ্রন্থাগার ও চারুকলার গেট পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে মানববন্ধন তৈরি করে তারা।

Save the Cricket – Save the Tigers, Don’t Trade our Cricket, Cricket is business to you but oxygen to us, Say no to Big 3, Play for Glory not for Money, এক দাবি এক দেশ টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ,  ক্রিকেট নিয়ে তিন মোড়লের দালালি চলবে না চলবে না, ক্রিকেট প্রাণের দাবি, ক্রিকেট নিয়ে ষড়যন্ত্র চলবে না, তিন শেয়ালের কাছে মুরগি বর্গা দেব না, আমাদের ক্রিকেটকে নয়, আমাকে খুন কর- এই স্লোগানগুলো ছিল তাদের হাতে আর মুখে।

মানব বাঘের সাজে শোয়েব আলিও আসেন প্রতিবাদ কর্মসূচিতে বাংলাদেশের সকল খেলায় যিনি স্টেডিয়ামে বাঘের গর্জন শুনান। স্লোগানে তিনি বলছিলেন, এক দাবি এক দেশ, টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ, Save the Cricket Save the Tigers.

টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে  কোনো ষড়যন্ত্র তারা হতে দেবে না।

সম্প্রতি ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া একটি খসড়া প্রস্তাব দিয়েছে যাতে বলা হয়েছে , টেস্ট ক্রিকেট র‌্যাঙ্কিংএ ৯ ও ১০ নম্বরে থাকা দল টেস্ট ক্রিকেট খেলতে পারবে না। সাত বছর আইসিসি ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ খেলে নতুন করে যোগ্যতা প্রমাণ করে টেস্ট খেলতে হবে তাদেরকে।  এই প্রস্তাব পাশ হলে র‌্যাঙ্কিংএ ১০ নম্বরে থাকা বাংলাদেশ টেস্ট খেলতে পারবে না। তাই এই খসড়া প্রস্তাবের প্রতিবাদেই মানববন্ধনে জড়ো হয়েছেন হাজারো টাইগার দর্শক।

খসড়া প্রস্তাবকারী ‘তিন মোড়লের’ মধ্যে ভারতের বিরুদ্ধেও প্রতিবাদী প্ল্যাকার্ড ও স্লোগান ছিল মানববন্ধনে। একই সাথে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেকে শক্তিশালী অবস্থান নেওয়ার দাবি জানান তারা।cricket

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শাহবাগে প্রতিবাদ করতে এসেছে একদল শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে আবির জানান, “বাংলাদেশের ক্রিকেট বিশ্বের ইতিহাসে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে গৌরবের ইতিহাস গড়েছে। তাই পরশ্রীকাতর হয়ে মোড়লগোষ্ঠী আমাদের ক্রিকেট ধ্বংসের খসড়া প্রস্তাব দিয়েছে। আমাদের ক্রিকেট বোর্ডের কাছে আমরা এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং আইসিসির দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। প্রয়োজনে বিসিবি এই তিন দেশকে বর্জন করবে”।

রাজধানীর শুক্রাবাদের গৃহিনী রিমি আফরোজ এসেছেন মানববন্ধনে। দেশের বাড়ি পটুয়াখালি। ছেলের ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারেন মোড়লগিরি হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সাথে। তাই তিনিও সামিল হয়েছেন প্রতিবাদী মিছিলে।

“সোহাগ গাজী আমাদের এলাকার খেলোয়াড়। বাংলাদেশের ক্রিকেটের সম্পদ। আমরা আশা করি ভবিষ্যতেও সোহাগ-সাকিবের মতো সবাই এবং বাংলাদেশ দলও নতুন রেকর্ড গড়বে। তাই আমরা ক্রিকেট নিয়ে কোনো ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত হতে দেব না”-বললেন রিমি আফরোজ।

বৃদ্ধ একজন মমিন উদ্দিন ছিলেন প্রতিবাদীদের মধ্যে। তিনি প্রায় ষাটোর্ধ্ব অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক। বললেন, ভারত হয়তো মনে করেছে আইসিসি মানে ইন্ডিয়া ক্রিকেট কাউন্সিল-যা বলবে তাই হবে। আমরা বাংলদেশের মানুষ এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

অধিকার আদায়ে সোচ্চার শিশুও আধো বোলে অগোছালো অথচ স্পষ্ট প্রতিবাদ জানিয়েছে এই চক্রান্তের বিরুদ্ধে ।

আয়োজকদের মধ্যে একজন বাবুল আকন জানান, “মিরপুর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজ চলাকালে আমরা বিপুল সংখ্যক ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ এই তিনদেশি চক্রান্তের প্রতিবাদ জানাবো। আমরা আশা করি আইসিসি আমাদের দাবি মেনে নেবে”।

একই সাথে দৃঢ়তার সাথে শক্ত অবস্থান নিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে আহ্বান জানান তিনি।