১৮ দলীয় জোটে যোগ দিয়েছে জাপা (জাফর)

0
83

jaforবিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮দলীয় জোটে যোগ দিয়েছে জাতীয় পার্টি (জাফর)। শনিবার রাতে দলের চেয়ারম্যান কাজী জাফর বিএনপিতে যোগ দেন। গতকাল বিকেলে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির বর্ধিত সভায় বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এর আগে গতকাল বিকেলে রাজধানীর গুলশানে বর্ধিত সভা শেষে সাংবাদিকদের কাছে কাজী জাফর নিজেকে জাতীয় পার্টির প্রকৃত চেয়ারম্যান বলে দাবি করেন। কাজী জাফরের ভাষায় এরশাদ হলেন ‘খলনায়ক’, ‘খেলোয়াড়’ আর রওশন এরশাদ আওয়ামীপন্থী জাতীয় পার্টির নেতা। তিনি বলেন, ‘আজকেই আমরা ১৮ দলে যোগ দেব ইনশাআল্লাহ। ১৮ দল ১৯ দলে পরিণত হবে। বাংলাদেশের মাটি এখন গণ-অভ্যুত্থানের প্রসববেদনায় উদ্বেল হয়ে উঠেছে। গণ-অভ্যুত্থান শুরু হলে হাসিনার তাসের ঘর আর দাঁড়াতে পারবে না। আজ দেশে নতুন বাকশাল কায়েম হয়েছে, সংসদে কোনো বিরোধী দল নেই।’

এদিকে বিএনপির একটি সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৮ দলের শীর্ষ নেতারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করবেন। আর সে সাক্ষাত অনুষ্ঠানে দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে জাতীয় পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমদের যোগদানের সম্ভাবনা রয়েছে।

সংসদের মেয়াদ প্রসঙ্গে কাজী জাফর বলেন, ‘আমি জ্যোতিষী নই, তবে বাংলাদেশ জোয়ার-ভাটার দেশ। জোয়ার-ভাটা কখন আসবে, আমি জানি না। জলোচ্ছ্বাস যখন আসে, তখন গ্রামকে গ্রাম ভাসিয়ে নিয়ে যায়। শেখ হাসিনার তাসের ঘরও তেমনিই ভেসে যাবে।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জাপা নেতা বলেন, স্বল্প সময়ের ব্যবধানে এ সরকারের পতন হবে। পৃথিবীর কেউ বিশ্বাস করে না, এই সংসদ ও সরকার টিকবে। কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন টি আই এম ফজলে রাব্বী, সাবেক সাংসদ নাওয়াব আলী আব্বাস খান, এস এম আলম গোলাম রেজা প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলন তরান্বিত করতে বিএনপি ১৮ দলীয় জোট গঠন করে। এই জোটে বিএনপির শরিক হিসেবে যোগ দেয় জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ঐক্যজোট, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), কল্যাণ পার্টি, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ ন্যাপ, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি), মুসলিম লীগ, বাংলাদেশ লেবার পার্টি, ইসলামিক পার্টি, ন্যাপ ভাসানী, ডেমোক্রেটিক লীগ (ডিএল) ও পিপলস লীগ।