গ্রামীণ অর্থনীতির জন্য বিশেষ প্রণোদনা জরুরি : দেবপ্রিয়

0
35
দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

দেবপ্রিয় ভট্টাচার্যরাজনৈতিক অস্থিরতায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ অর্থনীতিকে জাগিয়ে তুলতে বিশেষ প্রণোদনা দেওয়া  জরুরি বলে মনে করেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগের (সিপিডি) ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য। একই সাথে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্পের জন্য বিশেষ সুবিধা প্রদানের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডির সিপিডি কার্যালয়ে “বাংলাদেশের অর্থনীতি ২০১৩-১৪ দ্বিতীয় অন্তর্বর্তীকালীন পর্যালোচনা” বিষয়ক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান তিনি।

ড. দেবপ্রিয় বলেন, গত ছয় মাসে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে গ্রামীণ অর্থনীতি ও দেশীয় শিল্প খাত ভয়াবহ ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। এজন্য শুধু রপ্তানিমুখী শিল্পকে নয়, বরং সবধরনের শিল্পকে সমান গুরুত্ব দিয়ে বিশেষ প্রণোদনা দিতে হবে।বিশেষ করে দেশের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প পোলট্রি, দুগ্ধ খামার ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের বিশেষ প্রণোদনার আওতায় নিয়ে আসতে হবে। তাদের জন্য কৃষিঋণ বৃদ্ধিসহ ভর্তুকির ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে থ্রি এফ তথা ফুয়েল (জ্বালানী), ফুড (খাদ্য) ও ফার্টিলাইজারের (সার) মূল্য স্থিতিশীল রয়েছে। আবার এগুলোর মূল্য কমে আসার সম্ভাবনাও রয়েছে। তাই সরকার ইচ্ছে করলেই এসব ক্ষেত্রে ভর্তুকী কমিয়ে তা গ্রামীণ অর্থনীতি উন্নয়নে কাজে লাগাতে পারবে।

সরকারের আয় ও ব্যয়ের সমন্বয় করা প্রয়োজন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বছরের প্রথম ৫ মাসে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় রাজস্ব আদায় কম হয়েছে ৮ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। বৈদেশিক রেমিটেন্সের পরিমাণ কমে আসছে। বিদেশি অনুদান নেই বললেই চলে। তারপরও ঘাটতি ১১ শতাংশ থাকা বিস্ময়কর। তাই আয়-ব্যয়ের কাঠামোকে পুনর্গঠন করা দরকার। যে সকল প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে তা দ্রুত শেষ করতে হবে। অবকাঠামোগত উন্নয়নের ওপর জোর দিতে হবে।

দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, গণতন্ত্রায়নের সাথে অর্থনীতি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। গণতান্ত্রিকভাবে আস্থাভাজন নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত রাজনৈতিক অস্থিরতা সম্পূর্ণভাবে কাটবে না। আর এটা না হলে দেশে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ হবে না। সবার আগে দেশের রাজনীতিকে ও সরকারকে স্থায়ী ভিত্তির ওপর দাঁড় করাতে হবে।

সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে দেশের অর্থনীতি ভয়াবহ ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। দেশীয় শিল্প (রপ্তানিযোগ্য নয় এমন) লোকসানের মধ্যে রয়েছে। রাজস্ব আদায় কমে গেছে। তাই শিল্পের জন্য বিশেষ প্রণোদনা ও রাজস্ব আদায়ে কাঠামোকে রিশিডিউল করতে হবে।

অনুষ্ঠানে সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড. মোস্তাফিজুর রহমান, গবেষণা প্রধান ড. ফাহমিদা হক ও সহকারী গবেষণা সহকারী গবেষক ড. গোলাম মোয়াজ্জেম উপস্থিত ছিলেন।

এইউএন