দেশের অবস্থা ভালো না, দেশের মানুষও শান্তিতে নেই: কাদের সিদ্দিকী

0
93
কাদের সিদ্দিকী

kader shiddqueবিএনপি রাজাকারদের মন্ত্রী বানিয়ে তাদের গাড়ীতে জাতীয় পতাকা উড়িয়ে যদি অপরাধ করে থাকে তাহলে আওয়ামী লীগ তার ছেয়ে বেশী অপরাধ করেছে। ৭১ সালে পাক বাহীনিকে সহযোগীতা করার কারণে যদি রাজাকারদের বিচার হয়ে থাকে তাহলে পাকিস্তান সরকারের কর্মচারী পাকা রাজাকার মহিউদ্দিন খান আলমগীরের গাড়ীতে যারা পতাকা উড়িয়েছে তাদেরও বিচার হওয়া উচিত। দেশে বর্তমানে যে অবস্থা চলছে তাতে দেশের অবস্থা একেবারেই ভাল নয়। নির্বাচনের পর সনাতন ধর্মালম্বীদের উপর হামলার ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ কর্ণাই এলাকা পরিদর্শনে যাওয়ার আগে গতকাল বিকালে দিনাজপুর প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে কাদের সিদ্দিকী এই কথা গুলো বলেন।

তিনি বলেন, দেশ যদি আর কিছুদিন এভাবে চলতে থাকে তাহলে একটা সময় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির জন্য আলাদা আলাদা বসতি করতে হবে। মসজিদে নামাজ পড়ার জন্য আলাদা মসজিদ ও জানাযা নামাজ পড়ার জন্য আলাদা ঈমাম লাগবে। দেশের মানুষ আজ শান্তিতে নেই, অথচ আমরা যুদ্ধ করেছিলাম শান্তির জন্য। যখন আমি দেখব নির্বাচনের পর আমার শত্রুরাও নিরাপদে আছে তখন বুঝব দেশ শান্তিতে আছে। দেশের মানুষ অল্প সময়ের মধ্যে জেগে উঠবে এবং আরেকটি সুন্দর সুষ্ঠ নির্বাচনের দাবী আদায় করে নিবে।

এসময় তিনি আরো বলেন, আমি জাত আওয়ামী লীগের লোক, জাত আওয়ামী লীগ ঘোরানার লোক। তার পরও বলতে হচ্ছে আওয়ামী লীগ এখন আর গরীবের দল নয়,আওয়ামী লীগ এখন প্রচন্ড ধনী ও লুটেরাদের দল। তাই এখন পদে পদে গরীবদের মর্যাদাহানি হচ্ছে। যে কারণে ৫ই জানুয়ারির মত একটি নির্বাচন আমাদেরকে দেখতে হয়েছে। এর আগেও দেশে ভোট চুরি হয়েছে, ভোটার বিহীন নির্বাচন হয়েছে। কিন্তু এ রকম নির্বাচন দেখিনি। এর আগে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ অনেক কম আসন পেয়ে দেশ ভাল চালিয়েছে। কিন্তু দু’দলই বেশী আসন পেয়েও দেশ ভাল চালাতে পারেনি।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক হাবীবুর রহমান বীর প্রতীক, যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী ও সাংগঠনিক সম্পাদক সফিকুল ইসলাম ও জেলা বিএনপির সভাপতি লুৎফর রহমান মিন্টু।

সভা শেষে তিনি সদরের কর্ণাই এলাকা পরিদর্শণ করেন এবং ক্ষতিগ্রস্থ সনাতন ধর্মালম্বীদের সঙ্গে কথা বলেন।

সাকি/