মিশরে নতুন রাজধানীর পরিকল্পনা

অর্থসূচক ডেস্ক

0
121
মিশর সরকারের প্রস্তাবিত নতুন রাজধানীর নকশা। ছবি- বিবিসি
মিশর সরকারের প্রস্তাবিত নতুন রাজধানীর নকশা। ছবি- বিবিসি
মিশর সরকারের প্রস্তাবিত নতুন রাজধানীর নকশা। ছবি- বিবিসি

মিশরের বর্তমান রাজধানী কায়রোর পরিবর্তে নতুন একটি রাজধানী তৈরির পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার।

শনিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, কায়রো আর লোহিতসাগরের মাঝামাঝি কোনো স্থানে নতুন শহরটি গড়া হবে বলে ওই পরিকল্পনায় উল্লেখ করা হয়েছে। তবে এখনো শহরটি কোন নাম ঠিক করা হয়নি।

মিশরের অর্থনীতি বিষয়ক একটি সংবাদ সম্মেলনে নতুন রাজধানী তৈরির এই ঘোষণাটি দেওয়া হয়।

কায়রোর পূর্বদিকের ওই রাজধানীতে পার্লামেন্ট, মন্ত্রীদের কার্যালয় আর দূতাবাসগুলো থাকবে। সিঙ্গাপুরের আয়তনের সমান আর প্রায় ৫০ লাখ মানুষের বসবাসের উপযোগী করে শহরটি তৈরি করা হবে।

দেশটির সরকার বলছে, নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এর মধ্যেই ১২ হাজার কোটি ডলার সহায়তার আশ্বাস পাওয়া গেছে। কুয়েত, সৌদি আরব আর সংযুক্ত আরব আমিরাত এই অর্থ দেবে।

মিশর থেকে সংবাদদাতারা বলছেন, কায়রোর ভিড়, আর পরিবেশর উপর চাপ কমাতেই নতুন এই রাজধানী তৈরির পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

শহরটির পরিকল্পনার সাথে জড়িত আলাব্বর নামের একজন কর্মকর্তা বলছেন, নতুন শহরটি হবে অনেক বেশি জনবান্ধব। রনো কায়রোর ঐহিত্য ও নকশার উপর ভিত্তি করেই নতুন শহরটি তৈরি করা হবে এবং সেখানে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধাই থাকবে।

এই শহরটি তৈরি হলে তা মিশরের অর্থনীতির জন্য সুবাতাস আনবে বলে কর্মকর্তারা দাবি করেছেন। কারণ সেখানে চার হাজারের বেশি নতুন চাকরির সুযোগ সৃষ্টি হবে। শহরটিতে হিথরোর চেয়ে বড় একটি বিমানবন্দরও থাকবে।

সংবাদদাতারা বলছেন, অতীতেও মিশরে এ রকম বড় প্রকল্প নেওয়া হলেও, আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় সেগুলো শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ দেখতে পায়নি।

তবে বর্তমান সরকার এটিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নেবে। কারণ অর্থনীতির গতি ফেরাতে না পারলে মিশরের সংকট আরও বাড়বে।

অনেকেই বলছেন, আরব গণজাগরণ শুরু হওয়ার পর থেকেই মিশরে বিদেশী বিনিয়োগ কমে গেছে। সেই বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতেই সরকার নতুন এই শহর স্থাপনসহ আরও বেশ কয়েকটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

এসএল/