মধ্যপ্রাচ্যের বিনিয়োগ টানতে শরীয়াহ ইনডেক্স

0
65

DSE_Shariahতেল সমৃদ্ধ মধ্যপ্রাচ্য তথা আরব দেশগুলোর উদ্বৃত্ত অর্থ দেশের পুঁজিবাজারে টেনে আনার উদ্দেশ্যে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) শরীয়াহ ইনডেক্স চালু করছে। সোমবার এ সূচক চালু হবে। এতে অন্তর্ভূক্ত হবে শরীয়াহ আইন অনুসারে পরিচালিত পুঁজিবাজারের কোম্পানিগুলো। এতে কত কোম্পানি থাকবে তা স্পষ্ট করেননি।

রোববার বিকেলে  শরীয়াহ ইনডেক্স বিষয়ক সংবাদ সম্মেলনে ডিএসই সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে বিপুল পরিমাণ উদ্বৃত্ত অর্থ রয়েছে। কিন্তু ইসলামী প্রোডাক্টের স্বল্পতার কারণে আমাদের বাজারের প্রতি তারা আকৃষ্ট হয়নি। শরীয়াহ ইনডেক্স চালু হলে এ বাজারের প্রতি তাদের আগ্রহ বাড়বে।

ডিএসইর বোর্ডরুমে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মলেন শরীয়াহ ইনডেক্স সংক্রান্ত কৌশল,পদ্ধতি এবং বিভিন্ন দিক নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে এক মত বিনিময় সভা করেন এসঅ্যান্ডপির একটি প্রতিনিধি দল। সভায় ডিএসইর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট পরিচালক আব্দুল হক, আহাম্মেদ রশিদ লালী,  মিনহাজ মান্নান ইমন,আজিজুল হক,শাহেদ আব্দুল খালেক, শরিফ আনোয়ার হোসেন, শেখ কবির হোসনে, সিইও স্বপন কুমার বালা উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড পুওর-এর (এসঅ্যান্ডপি) পদ্ধতি অনুযায়ী এই সূচক গঠন করা হচ্ছে। ডিএসইতে তালিকাভুক্ত যে সব কোম্পানি শরীয়াহ আইন অনুসরণ করে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করে সেগুলোকে এ সূচকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

বর্তমানে ডিএসইতে ব্যাংক,আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বিমা খাতের ১১ টি শরীয়াহ ভিত্তিক কোম্পানি রয়েছে।  এছাড়া আছে তিনটি মিউচুয়াল ফান্ড।  ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে-আল আরাফা ইসলামী ব্যাংক,ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক,আইসিবি ইসলামী ব্যাংক,শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক,সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক এবং ইসলামি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। তবে কতটি কোম্পানি নিয়ে এই সূচকটি চালু হবে তা বাজারে সচ্ছতার জন্য প্রকাশ করা হয়নি।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কেবল ইসলামিক ফাইনান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড শরীয়াহ আইন অনুসারে পরিচালিত হয়। ইনস্যুরেন্স কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইনস্যুরেন্স,ইসলামী ইনস্যুরেন্স বাংলাদেশ লিমিটেড,পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ইসলামী লাইফ ইনস্যুরেন্স,তাকাফুল ইসলামী লাইফ ইনস্যুরেন্স এবং মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে রয়েছে আইবিএল ফারইস্ট ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড,আইসিবি এএমসিএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড এবং আইএফ আই এল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড।

জানা গেছে, ২০১১ সালের জানুয়ারিকে এ সূচকের ভিত্তি ধরা হবে আর এটি নয়শ থেকে এক হাজার ভিত্ত পয়েন্টে।

বর্তমানে মালয়েশিয়া,জার্মানি,লন্ডন,ভারতসহ বেশ কিছু দেশে শরীয়াহ সূচক চালু রয়েছে বলেও জানান তারা।

জানা যায়,এই সূচকটি চালু করার জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে সম্মত হয়েছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। এর আগে গত বছর গঠিত পুঁজিবাজার সমন্বয় কমিটি ও ইসলামী ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে ইসলামী ব্যাংকের পক্ষ থেকে এই সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জও (সিএসই) শরীয়াহ সূচক চালুর উদ্যোগ নিয়েছে। বিষয়টি ইতোমধ্যে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি)অবহিত করেছে। আগামি মাসে এটি চালু হতে পারে।

জিইউ/এসএ/এমআরবি