চা শিল্পে ২০৫ কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন তহবিল

0
129

srimangol-tea-gardenচা চাষকে আরও এগিয়ে নিতে একটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল গঠন করা হচ্ছে। ২০৩ কোটি ৪৫ লাখ টাকার এ তহবিলটি তত্বাবধান করবে  বাংলাদেশ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে তহবিলটি থেকে মাত্র ৫ শতাংশ সুদে ঋণ পাবেন এ খাতের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।

বাংলাদেশ ব্যাংকও এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানিয়েছে, ১ জানুয়ারি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ড. আতিউর রহমানের কাছে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠিতে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, অর্থমন্ত্রী চা চাষকে আরও সহজীকরণ করার জন্য এ খাতে স্বল্প সুদে ঋণ দেওয়ার ব্যবস্থা করতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করেছেন।বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুরোধ করেছে।

এর আগে নভেম্বর মাসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে কৃষি ও পল্লী ঋণের আওতায় ৪ শতাংশ সুদে চা চাষের জন্য ঋণ দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে অনুরোধ করে চিঠি পাঠানো হয়। কিন্তু চা শিল্প করপোরেট প্রতিষ্ঠান হওয়ায় এ খাতে কৃষিঋণ বিতরণ করা যাবে না বলে বাংলাদেশ ব্যাংক তা প্রত্যাখান করে। পরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে পুনঃরায় চিঠি পাঠিয়ে এ খাতের জন্য আলাদা পুনঃঅর্থায়ন তহবিল গঠন করার জন্য বলা হয়। চিঠিতে এ তহবিলের আকার ২০৩ কোটি ৪৫ লাখ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ সুদে ঋণ দেয়ার জন্যও বলা হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এ নির্দেশের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান সংশ্লিষ্ট বিভাগকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন বলে সূত্র জানিয়েছে।

জানা গেছে, চা চাষের জন্য ব্যাংক থেকে উচ্চহারে সুদ নিতে হয় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে। এ কারণে চা চাষের প্রসার বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। প্রতি বছর দেশে ৪ থেকে ৫ হাজার টন চা উৎপাদন হয়।এর ৮০ ভাগ বিদেশে রপ্তানি করা হয় বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

চা শিল্পের উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ চা বোর্ড থেকে ১২ বছরের একটি উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।২০১২-১৩ অর্থবছর থেকে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য নেওয়া এ পরিকল্পনায় ১০৬ টি চা শিল্প প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৬ হাজার ৪৪০ হেক্টর জমিতে চা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।