ভারতে রেকর্ড ৩২২ বিলিয়ন ডলারের রিজার্ভ

অর্থসূচক ডেস্ক

0
348
rupee & dollar
মার্কিন ডলার ও ভারতীয় রুপি।

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে নতুন রেকর্ড গড়েছে ভারত। সম্প্রতি দেশটির রিজার্ভ ৩২২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়েছে। এর আগের রেকর্ডটি হয়েছিল ২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে। ওই সময় দেশটির বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছিল প্রায় ৩২‌১ বিলিয়ন ডলার।

rupee & dollar
মার্কিন ডলার ও ভারতীয় রুপি।

গতকাল শুক্রবার ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক আরবিআই (রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া) বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের ওই তথ্য প্রকাশ করে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, এক সপ্তাহে ২ দশমিক ৭ বিলিয়ন রিজার্ভ যোগ হওয়ায় ৩ বছর আগের রেকর্ডটি ভেঙ্গেছে। এদিকে ডলারের বিপুল সরবরাহের কারণে রুপির বিপরীতে এর বিনিময় মূল্য কমছে। শুক্রবার ১ ডলারের বিপরীতে ৬১ দশমিক ৪৪ রুপি পাওয়া গেছে।

বর্তমান রিজার্ভ দিয়ে দেশটির প্রায় সাড়ে ৮ মাসের প্রয়োজনীয় আমদানি ব্যয় মিটানো যাবে বলে জানিয়েছে আরবিআই।

বিশ্বে সর্বোচ্চ বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ তালিকায় ভারতের অবস্থান ৯ম। শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে আরও রয়েছে চীন, জাপান ও সৌদি আরব। তবে প্রতিবেশী চীনের সঙ্গে ভারতে রিজার্ভের ব্যবধান অনেক বেশি। চীনের রিজার্ভ প্রায় ৩ দশমিক ৮ ট্রিলিয়ন, যা ভারতের রিজার্ভের ১২ গুণ। ভারতের চলতি হিসাবে বিদ্যমান বিশাল ঘাটতির কারণে রিজার্ভ ততটা বাড়ছে না। স্বর্ণ, অশোধিত পেট্রোলিয়াম ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী আমদানিতে দেশটির বিপুল বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হয়।

ব্লুমবার্গের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংকের মজুদ গত ১২ মাসে ৩০ বিলিয়ন ডলার বা ১০ শতাংশ বেড়েছে। অপরদিকে চীনের মজুদ বেড়েছে ২৩ বিলিয়ন ডলার বা ৪ শতাংশের কাছাকাছি।

২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ব্যাপকভাবে কমে যায়। এতে রুপির মান কমে। এই অবস্থায় দেশটির সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ বাড়ানোর জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেয়। ভারত থেকে বাইরে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠানোর ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। অন্যদিকে বিনিয়োগ বাড়ানোর মাধ্যমে দেশে বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ে আসার জন্য নেওয়া হয় নানা উদ্যোগ। মূলত এসব উদ্যোগের ফলেই দেশটির বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আবারও বাড়তে শুরু করে।

সূত্র: বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড, টাইমস অব ইন্ডিয়া

এআরএস/এমই/