ডিএসই’র আগামি বোর্ড সভায় উঠছে টি প্লাস টু’র প্রস্তাব

0
53
ডিএসই ভবন
ছবি: ফাইল ছবি

ছবি: ফাইল ছবিচট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের পর এবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জেও (ডিএসই) লেনদেন নিষ্পত্তির সময়সীমা কমছে। সময়সীমা একদিন কমিয়ে এ এক্সচেঞ্জও যাচ্ছে টি প্লাস টু’তে। স্টক এক্সচেঞ্জটির পরিচালনা পর্ষদের আগামি সভায় উঠবে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব। ওই বৈঠকে টি প্লাস টু চালুর দিনক্ষণ ঠিক করা হবে।  ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এটি চালু হলে চার দিনের পরিবর্তে তিন দিনের মধ্যেই বিনিয়োগকারীরা টাকা ফেরত পাবেন। একইভাবে শেয়ারের ক্রেতা তৃতীয় দিনে তার শেয়ার বুঝে পাবেন।

বর্তমানে ডিএসইতে শেয়ার কিনে তা বেচতে চাইলে  তিনিদন তিনদিন অপেক্ষা করে চতুর্থ দিনে তা করতে হয়। কিন্ত সিএসই লেনদেন নিষ্পত্তির সময় টি প্লাস থ্রি থেকে কমিয়ে টি প্লাস টু করায় সেখানে দুইদিন পরেই তা সম্ভব।

একই বাজারে দুই ধরনের পদ্ধতি চালু থাকায় এক ধরনের অসমতা তৈরি হয়েছে। বড় স্টক এক্সচেঞ্জ ডিএসই এখনও টি প্লাস থ্রি অনুসারে নিষ্পত্তি করায় বিনিয়োগকারীদের বড় অংশ লেনদেন নিষ্পত্তির সময় কমানোর সুফল পাচ্ছে না। অন্যদিকে সিএসই দিকে বিনিয়োগকারীদের ঝোঁক বাড়ছে।

এমন বাস্তবতায় ডিএসইও স্বল্পতম সময়ের মধ্যে টি প্লাস টু চালু করতে চাচ্ছে। ইতোমধ্যে বেশিরভাগ ব্যাংকের সঙ্গে তাদের ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার সংক্রান্ত প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। কবে নাগাদ এটি চালু করা সম্ভব হবে তা নিয়ে আগামি পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিএসই’র এক কর্মকর্তা এ বিষয়ে বলেন, গত বছর ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন স্কিম সংক্রান্ত কার্যক্রমে বোর্ড সভায় বিষয়টি উত্থাপন করা যায়নি। এখন ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন স্কিম সংক্রান্ত কাজ শেষ পর্যায়। তাই এ বিষয়টি নিয়ে এখন আলোচনা চলছে। খুব শীগ্রই এটির সমধান হবে।

বিষয়টি স্বীকার করে ডিএসইর সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু অর্থসূচককে বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমাদের পরিচালনা পর্ষদে কথা হচ্ছে। আগামি পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে এটি নিয়ে আমরা আলোচনা করবো।

তিনি আরও বলেন, যতো দ্রুত সম্ভব আমরা টি প্লাস টু চালু করবো। যাতে করে এর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীসহ সংশ্লিষ্ট সবাই উপকৃত হয়।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৩ নভেম্বর সিএসইতে লেনদেন নিষ্পত্তির সময়সীমা তিনদিনের পরিবর্তে দুদিন করা হয়।

এর আগে, ২০১১ সালে ডিসেম্বর মাসে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সেটেলমেন্ট সাইকেল কমানোর অনুমোদন দেয়।

জিইউ