যুক্তরাষ্ট্র আবারও চিঠি দিলেন দু’নেত্রীকে

0
94
হাসিনা-খালেদা

Hasina_Khaledaদেশের রাজনৈতিক সংকট নিরসন করতে দু’লকে সংলাপে বসে গ্রহণযোগ্য ও সুষ্ঠু নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে আরেক দফা চিঠি পাঠিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

শনিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সিনেটের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক কমিটির চেয়ারম্যান রবার্ট মেনেন্ডেজ  দুই নেত্রীকে পৃথকভাবে  দু’টি চিঠি পাঠান।

পৃথকভাবে পাঠানো চিঠিতে তিনি দু’নেত্রীকেই রাজনৈতিক অচলাবস্থা কাটানো, সহিংসতা বন্ধ ও অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আয়োজনে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছেন।
রবার্ট মেনেন্ডেজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়াকে সম্বোধন করে লিখেছেন, বাংলাদেশে চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থায় আমার উদ্বেগের কথা ব্যক্ত করতে ও আপনার প্রতিপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসে পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে দেশকে এগিয়ে নেয়ার আহ্বান জানাতেই এই চিঠি পাঠিয়েছি আমি।যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। আমাদের এ দুটি দেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বর্তমানে ৬০০ কোটি ডলার ছাড়িয়েছে এবং মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলো বাংলাদেশে গুরুত্বপূর্ণ দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ করেছে। চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা অর্থনীতিতে গুরুতর প্রভাব ফেলেছে ও তা বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আস্থাকে আরো দুর্বল করে দেবে। তলানির দিকে এ ঘূর্ণায়মান এ পরিস্থিতি অবসানের লক্ষ্যে আমি দৃঢ়ভাবে আপনাকে নতুন অবাধ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের ব্যাপারে আলোচনা শুরুর আহ্বান জানাচ্ছি। বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক পূর্বে কখনও এতোটা সুদৃঢ় ছিল না। আমরা ক্রমবর্ধমানভাবে অভিন্ন বহু স্বার্থে পরস্পরের অংশীদার। কিন্তু, বর্তমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা ও সংশ্লিষ্ট সহিংসতা আমাদের অভিন্ন অর্জনকে বিশেষভাবে হুমকির মুখে ফেলছে।
তিনি উল্লেখ করেন, বর্তমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে এবং তা বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ও অর্থনৈতিক ভবিষ্যতের ওপর দীর্ঘমেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। সহিংসতা কখনোই রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির গ্রহণযোগ্য ও বৈধ বহিঃপ্রকাশ নয়।সহিংসতা অবশ্যই বন্ধ হতে হবে ও দলগুলোকে শান্তিপূর্ণভাবে রাজনৈতিক মতামত প্রকাশের জন্য   সুযোগ করে দিতে হবে।

এমআর/