শীতের অলসতা কাটাবেন যেভাবে

0
160
girl
ফাইল ছবি
yoga-in-bed
বিছানায় বসেই যোগ ব্যায়াম-ফাইল ছবি

শীতের সকালে বিছানা থেকে উঠতে একদমই ইচ্ছা করে না। মনে হয় আর একটু ঘুমিয়ে নেই। এতে ক্লাশ কিংবা অফিসে পৌঁছতে প্রায়ই দেরি হয়ে যায়। শীত যত বাড়বে, সকাল বেলা ঘুম থেকে ওঠা ততই আরও মুশকিল হয়ে দাঁড়াবে।

জেনে নিন অলসতা কাটানোর কিছু কৌশল যা আপনাকে সকাল সকালই ঘুম থেকে উঠতে সাহায্য করবে।

ঘুমানোর আগে কিছু পান করুন

ঘুমানোর আগে কিছু পান করলে সেটা শরীরের পাশাপাশি আরও একটি কাজ করবে। সকাল সকালই তখন প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘুম ভেঙে যাবে। বিছানা থেকে একবার উঠলেই কিন্তু আর ঘুমাতে যেতে ইচ্ছে করবে না।

নিজের সাথে কোনো সমঝোতায় যাবেন না

আর একটু পরেই উঠবো। নিজের মনকে এই জাতীয় কথা বলে আরও কিছুক্ষণ বিছানায় থাকার অভ্যাসটা ত্যাগ করুন। যত কষ্টই হোক না কেন, অ্যালার্ম ঘড়ি বেজে ওঠার সাথে সাথে বিছানা থেকে উঠে পড়ুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে যদি দেখেন আপনার হাতে বেশ কিছুক্ষণ সময় আছে তবে হালকা ব্যায়াম করে নিন। নিমিষেই শরীর এবং মন ফুরফুরে হয়ে উঠবে।

পানি পান করুন

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর পরই এক গ্লাস পানি পান করুন। এতে শরীর সক্রিয় হওয়ার পাশাপাশি ঘুম ভাবটাও কেটে যাবে।

চা/কফি পান করুন

ঘুম থেকে উঠেই এক কাপ চা বা কফি পান করুন। এতেও কিন্তু ঘুম চলে যাবে।

ভালো কিছুর প্রত্যাশা রাখুন

আপনার আগ্রহ আছে এমন কোনো কাজ ঠিক করে রাখুন। সেটা ভালো লাগার কোনো কাজও হতে পারে। যেমন- মজার ব্রেকফাস্ট খাওয়া, সুগন্ধি সাবান দিয়ে গোসল করা অথবা ঘুম থেকে উঠে নতুন একটা ম্যাগাজিনের পাতা ওলটানো। যে কাজই হোক না কেন, সকালে উঠেই যেন মনটা ভালো হয়ে যায় এমন কাজ করার চেষ্টা করুন।

সক্রিয় থাকুন

সকাল বেলায় লম্বা সময় ধরে ব্যায়াম করা সম্ভব নাও হতে পারে। তাই বিছানায় শুয়েই কিছুক্ষণ যোগ ব্যায়াম করুন। একটা চটুল সুরের গান ছেড়ে দিয়ে নিজের মতো করে নাচতেও পারেন, তাতে মনটা ভালো হয়ে যাবে। সম্ভব হলে কিছুক্ষণ জগিং করে নিতে পারেন।

ঘুম থেকে উঠেই গোসল করুন

হালকা গরম পানি দিয়ে গোসল করলে শরীরে রক্ত চলাচল ভালো হয়। এ সময় সতেজ সুবাসের কোনো সাবান ব্যবহার করুন। এতে জলদি ঘুমের রেশ কেটে যাবে।

নিজের কাজের কথা মনে করুন

সকালে ঘুম ভাঙ্গার পর একটা একটা করে কাজের কথা মনে করুন। চিন্তা করুন কাজগুলো যত দ্রুত করে ফেলা যায় ততই ভালো। দরকার হলে একটা ছোট নোটবইতে কাজের তালিকা করে সেটা বিছানার পাশের টেবিলে রেখে দিন।

কৌশলগুলোর কোনটাই কাজে না লাগলে অ্যালার্ম ঘড়ির শব্দের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিন। তবে ঘড়িটি বিছানা থেকে বেশ দূরে রাখুন। ঘরের অপর প্রান্তে রাখলে সেটা বন্ধ করতে কিন্তু বিছানা থেকে উঠতেই হবে আপনাকে।

এএসএ/