‘১০০ ওয়াট ফ্রি দিলে বিদ্যুৎ চুরি কমতো’

0
96
m-a-mannan
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান (ফাইল ছবি)
m-a-mannan
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান (ফাইল ছবি)

অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বর্তমানে বিদ্যুৎখাতে চুরির প্রবণতা অনেক বেশি। মনে হয়, প্রথম ১০০ ওয়াট পর্যন্ত গ্রাহককে ফ্রি দেওয়া হলে এই চুরির প্রবণতা কিছুটা কমতো।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘জাতীয় বিদ্যুৎ সপ্তাহ-২০১৪’ উপলক্ষে ‘বিদ্যুৎখাতে বেসরকারী বিনিয়োগকারীদের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এম এ মান্নান বলেন, আমি সরকারেরই একজন প্রতিনিধি তাই বলা ঠিক হবে না। তবুও বলছি। বর্তমানে বিদ্যুৎখাতে চুরির প্রবণতা অনেক বেশি। মনে হয়, প্রথম ১০০ ওয়াট পর্যন্ত গ্রাহককে ফ্রি দেওয়া হলে এই চুরির প্রবণতা কিছুটা কমতো।

দেশে দিন দিন বিদ্যুতের চাহিদা বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হলে দ্বিগুন দামেও মানুষ বিদ্যুৎ নেবে। কিন্তু আমরা নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ দিতে পারছি না। তাই বিদ্যুৎখাতের উন্নয়নে সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে আসতে হবে।

বিদ্যুৎ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য উল্লেখ করে অর্থ প্রতিমন্ত্রী বলেন, উন্নয়নের জন্য বিদ্যুৎ এবং শিক্ষা প্রয়োজন। এ খাতের উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের এগিয়ে আসতে হবে।

সেমিনারে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিদ্যুৎ খাতের ব্যবসায়ী স্বল্প সুদে ঋণ দিতে হবে। তাহলে এ খাতে দ্রুত উন্নয়ন হবে।

দিন দিন দেশে গ্যাসের পরিমাণ কমছে উল্লেখ করে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু বকর সিদ্দিক বলেন, গ্যাসের পরিমাণ খুব দ্রুত কমছে। সেজন্য জ্বালানি উপকরণ হিসেবে কয়লার উপর নির্ভরশীলতা বাড়াতে হবে। কারণ বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রচুর গ্যাসের দরকার হয়। কয়লার ব্যবহার বাড়ালে গ্যাসের উপর চাপ কিছুটা কমে আসবে।

বিদ্যুৎ সচিব মনোয়ার হোসেন বলেন, গ্যাস ব্যবহার করে ৬৫ শতাংশ বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়। ফলে গ্যাসের উপর চাপ বাড়ছে। এখন সময় আসছে গ্যাসের বিকল্প হিসেবে কয়লাকে বেছে নেওয়ার।

জেইউ/এসবি