তেলের দর ব্যারেল প্রতি ৬০ ডলারের কাছাকাছি

0
90
oil
ফাইল ছবি
oil
ফাইল ছবি

চাহিদা কমে যাওয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদন বৃদ্ধির কারণে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দরপতন অব্যাহত আছে। এ পতনের কারণে তেলের দর বর্তমানে গত পাঁচ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে আছে।

এক খবরে রয়টার্স জানিয়েছে, বুধবার জ্বালানি তেলের দাম ‘মনস্তাত্ত্বিক সীমানা’ ব্যারেল প্রতি ৬০ মার্কিন ডলার কাছাকাছি চলে এসেছে।

ওই দিন বিশ্ববাজারে ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ৩ দশমিক ৯ শতাংশ কমে ব্যারেল প্রতি ৬৪ দশমিক ৯৪ মার্কিন ডলারে এসে ঠেকেছে। এই দিন তেলের দাম ৬৩ দশমিক ৫৬ মার্কিন ডলার পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিল, যা ২০০৯ সালের জুনের পর সর্বনিম্ন।

এছাড়া বুধবার ইউএস ক্রুডের দাম সাড়ে ৪ শতাংশ কমে ব্যারেল প্রতি ৬০ দশমিক ৯৪ এসে ঠেকেছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন জানিয়েছে, গত সপ্তাহে দেশটিতে গ্যাসোলিনের মজুদ ৮২ লাখ ব্যারেল বৃদ্ধি পেয়েছে।

সম্প্রতি অর্গানাইজেশন অব অয়েল পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিসের (ওপেক) এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, পরবর্তী বছরে তেলের চাহিদা হবে দৈনিক ২ কোটি ৮৯ লাখ ২০ হাজার ব্যারেল, যা পূর্বের প্রত্যাশার তুলনায় ২ লাখ ৮০ হাজার ব্যারেল কম।

এদিকে তেলের দরপতন অব্যাহত থাকলেও উৎপাদন না কমানোর সিদ্ধান্তে অনড় আছে ওপেকের সবচেয়ে বড় উৎপাদক সৌদি আরব।