ডিএসইতে ১৪ মাসে সর্বনিম্ন লেনদেন

0
89
DSE
পুঁজিবাজারে সূচকের পতন
DSE-Dawn
উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে কমেছে সূচক ও লেনদেন

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ১৩৬ কোটি ৮৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন পুঁজিবাজারে। এদিন দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই লেনদেনের সাথে  সূচকেরও পতন হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২০ অক্টোবর ডিএসইতে ১১০ কোটি ৪৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২৮৪ কোটি ৭০ লাখ টাকার বা ৬৮ শতাংশ। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৪২১ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার।

প্রসঙ্গত, আজ ডিএসই’র নেক্সট জেনারেশন অটোমেটেড ট্রেডিং সিস্টেম চালু হয়। আর নতুন সফটওয়্যার চালুর প্রথম দিনেই লেনদেনে বড় ধরনের হোঁচট খেল পুঁজিবাজার।

ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক বা ডিএসই এক্স সূচক ১০ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৯৩৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক দশমিক ৭৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১৫৫ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮২৩ পয়েন্টে।

ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩০৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৭টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৪৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির।

এছাড়া আজ ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে সামিট পোর্ট অ্যালায়েন্সের শেয়ার। এরপরে রয়েছে- কাশেম ড্রাইসেলস, গ্রামীণফোন, বিডি থাই অ্যালুমিনিয়াম, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, স্কয়ার ফার্মা, অগ্নি সিস্টেমস, বেক্সিমকো, তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং এবং হামিদ ফেব্রিক্স লিমিটেড।

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে। বৃহস্পতিবার সিএসইতে ২৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৬০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ১৭৭ পয়েন্টে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২১৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬২টির, কমেছে ১২৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির।

অর্থসূচক/এসএ/