ডেরিভেটিভস চালু করতে সফটও্যয়ার আনছে ডিএসই

0
84
DSE-UP
ডিএসই সূচক ঊর্ধ্বমুখী

DSE-UPপণ্য ও সেবা বহুমুখীকরণের উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ। আর তার জন্য আনা হচ্ছে নতুন সফটওয়্যার। ইতোমধ্যে এর জন্য পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এ সফটওয়্যারে ডেরিভেটিস প্রোডাক্ট, কমোডিটি পণ্য এবং বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতেই এমন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, এই কাজকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য ইতোমধ্য খালিদ রহিমকে পরমর্শক দিয়েছে ডিএসই কর্তপক্ষ। বর্তমান পরিচালনা পর্ষদের সময়ই এ কাজ সম্পর্ণ হবে বলে আশাবাদি ডিএসই।

জানা যায়, এ জন্য প্রথমিকভাবে লন্ডনের মিলেনিয়াম ইনফরমেশন টেকনোলজির (এমআইটি) ও যুক্তরাষ্ট্রের নাসডাক ওএমএক্স স্টক এক্সচেঞ্জের যে সফটওয়ার সঙ্গে আলাপ আলোচনা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, এর মাধ্যমে ট্রেডিং প্লাটফর্ম নামে পরিচিত এবং এ সফটওয়্যার স্টক এক্সচেঞ্জে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। আর স্টক এক্সচেঞ্জের সদস্যভুক্ত স্টক ব্রোকাররা ফ্রন্টএন্ডে অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করে থাকে। যা পোলারিস নামক কোম্পানির তৈরি।

জানা যায় ,এ লক্ষ্যে গত সপ্তাহে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদে অবস্থিত সিএসইর প্রধান কার্যালয় ও একটি ব্রোকারেজ হাউজ পরিদর্শন করেছে ডিএসইর দুইজন কর্মকর্তা। এ সময় তারা সফটওয়্যার সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ের ওপর তথ্য নিয়েছেন। পরিদর্শন কার্যক্রমে ডিএসইর পক্ষ থেকে মোট ১১টি বিষয় সম্পর্কে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সিএসই কোন প্রতিষ্ঠানের সফটওয়্যার ব্যবহার করে তা পর্যালোচনা করা হয়েছে। সফটওয়্যারটির বিভিন্ন অংশ অর্থাৎ কোর ইঞ্জিন ও অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (এমওএস) কোন প্রতিষ্ঠানের এবং তার কার্যক্ষমতা কেমন তা পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। এ ছাড়া সফটওয়্যারটি চালু করার সময় কোনো সমস্যা হয়েছে কি না এবং এ বিষয়ে ব্রোকারদের মতামত পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু অর্থসূচককে বলেন, নতুন পরিচালনা পর্ষদ কাজটি শুরু করতে সময় লেগে যাবে। তাই আমরা এই পরিচালনা পর্ষদই কাজটি শেষ করে যতে চাই। যাতে করে নতুন পর্ষদ আসলে বাজারের প্রতি বিনিয়োগকারীদেরকে বেশি আকৃস্ট করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, এই সফটওয়ার প্রতিস্থাপন করা হলে ডেরিভেটিস প্রোডাক্ট, কমোডিটি পণ্যসহ পুঁজিবাজেরের সঙ্গে সম্পর্কিত অনেক ব্যবসা চালু করা যাবে। এতে করে দেশি বিদেশি বিনিযোগকারীরা ব্যবসা করার জন্য আরও আগ্রহী হবে।

জিইউ