লাভক্রাফট গার্মেন্টস মালিক এহসানের বিচার দাবি

0
75
বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে শ্রমিক নেতারা লাভক্রাফট গার্মেন্টসের মালিক এহসান এলাহীর বিচার দাবি করে। ছবি:মহুবার রহমান
বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে শ্রমিক নেতারা লাভক্রাফট গার্মেন্টসের  মালিক এহসান এলাহীর বিচার দাবি করে। ছবি:মহুবার রহমান
বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে শ্রমিক নেতারা লাভক্রাফট গার্মেন্টসের মালিক এহসান এলাহীর বিচার দাবি করে। ছবি:মহুবার রহমান

লাভক্রাফট গার্মেন্টস শ্রমিকদের ওপর হামলা ও পাওনা না দিয়ে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নেওয়ার অভিযোগ এনে কারখানাটির মালিক এহসান এলাহীর বিচার দাবি করেছে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে শ্রমিক নেতারা এ দাবি জানান।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাফিয়া পারভীন অভিযোগ করে বলেন, লাভক্রাফট গার্মেন্টেসের মালিক ভাড়াটে মাস্তান দিয়ে শ্রমিকদের ওপর হামলা করে। এতে ৪ শ্রমিক আহত হয়। এছাড়া শ্রমিকদের হাজিরা কার্ড ছিনিয়ে নিয়ে পাওনা না দিয়ে জোরপূর্বক অব্যাহতিপত্রে স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছে। শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ না করেই কারখানা বন্ধ করে দিয়েছেন এহসান এলাহী।

কারখানা মালিকের শস্তির দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, অবিলম্বে কারখানা খুলে দিতে হবে। শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করতে হবে। ছিনিয়ে নেওয়া আইডি কার্ড ফেরত দিয়ে শ্রমিকদের চাকরিতে পুনর্বহাল করতে হবে।

বিপ্লবী গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সালউদ্দিন স্বপন বলেন, লাভক্রাফট গার্মেন্টেসের শ্রমিকরা আইন অনুযায়ী একটি ইউনিয়ন গঠন করেছে। কারখানার মালিক এই ইউনিয়ন ধ্বংসের ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, অ্যালায়েন্সের বিশেষজ্ঞরা পরিদর্শনের পর কারখানা নিরাপদ না হওয়ায় বেশ কিছু সংস্কারমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বলেছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ সংস্কার না করে শ্রমিকদের বেতন ভাতা ও ক্ষতিপূরণ না দিয়ে কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। এতে প্রায় ৭ শতাধিক শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছে।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি এম দেলোয়ার হোসেন, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য কামরুল আহসান, বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রীর সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

এমআই/এসএম