‘দেশে মানবাধিকার বলে কিছুই নেই’

0
85
human rights
human rights
‘বিশ্ব মানবাধিকার দিবস-২০১৪’ উপলক্ষে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

দেশের নাগরিকরা প্রতিনিয়ত তাদের অধিকার হতে বঞ্চিত হচ্ছে। অর্থনৈতিক, সামাজিক ও মানবিক অবস্থা দিন দিন শোচনীয় হচ্ছে। দেশে এখন মানবাধিকার বলে কিছুই নেই বলে অভিযোগ করেছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানবাধিকার সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ অভিযোগ করা হয়।

‘বিশ্ব মানবাধিকার দিবস-২০১৪’ উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতি, হিউম্যান রাইটস ইন্টারন্যাশনাল, আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন, আমাদের আইন, সবার তরে আমরা ফাউন্ডেশন এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মানবাধিকার মানুষের জন্মগত অধিকার। এ অধিকার সস্পর্কে সবাইকে জানতে হবে, অন্যকেও জানাতে হবে এবং এ বিয়য়ে সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি মেনে চলার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

তারা বলেন, যে দেশের মানুষ যত বেশি সচেতন, সে দেশে অধিকারের বাস্তবায়ন ততই বেশি উন্নত। কিন্তু আজ আমাদের সমাজে নানাভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। যার প্রতিকারের মাত্রা খুবই কম। বিশেষ করে নারী অধিকার, আইনের শাসন এবং রাজনৈতিক অবস্থা সংকটাপন্ন, যা দেশের সার্বিক উন্নয়নে বাধার সৃষ্টি করছে।

বক্তারা আরও বলেন, গুম-খুন-সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, চাঁদাবাজি ও টেন্ডারবাজি সর্বত্র বিরাজমান। দেশের জনগণ খুন-ধর্ষণ আর চাঁদাবাজি দেখতে চায় না। মানুষ স্বাভাবিক মৃত্যুর নিশ্চয়তা চায়।

যারা মানবাধিকার নিয়ে কাজ করছেন তারা শুধু কার্ডধারী কর্মী না হয়ে মানুষের অধিকার নিয়ে কাজ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন বক্তারা।

এ সময় সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে দেশে বিদ্যমান পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে সহিংসতার সব পথ বন্ধ করার দাবি জানানো হয়।

আমাদের আইনের সভাপতি মো. রফিউদ্দিন, আসকের চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক এনাম, বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান শরীফ মোস্তফাজামান লিটু প্রমুখ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

এমআই/