স্নোডেনকে পটাতে সুন্দরী লেলিয়ে দিয়েছিল রাশিয়া

0
120
chapman
চ্যাপম্যান
chapman-snowden
চ্যাপম্যান ও স্নোডেন- ছবি সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার (এনএসএ)’র সাবেক ঠিকাদার এডওয়ার্ড স্নোডেনকে পটাতে রাশিয়ার সেক্সি গার্ল, প্রাক্তন গোয়েন্দা প্রতিনিধি আনা চ্যাপম্যানকে লেলিয়ে দিয়েছিল সে দেশের গোয়েন্দা প্রধানরা।

সোভিয়েত ইউনিয়ন গোয়েন্দা সংস্থা কেজিবির সাবেক প্রতিনিধি বরিস কার্পিসখোভ রোববার এই দাবি জানিয়েছেন।

তিনি অভিযোগ করেন, স্নোডেনকে জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে যেতে এবং মস্কোতে তাকে ধরে রাখতে তার পেছনে ৩২ বছরের চ্যাপম্যানকে লেলিয়ে দেওয়ার এই পরিকল্পনা করে রাশিয়া।

স্নোডেন ও চাপম্যানকে পরস্পর একবার দেখা করার জন্য বলা হয়েছিল। কিন্তু চাপম্যান ২০১৩ সালের জুলাইতে স্নোডেনকে টুইটারে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ফেলেন।

কার্পিসখোভ সাংবাদিকদের জাননা, যদি স্নোডেন এই প্রস্তাবে সাড়া দিতেন তবে তিনি রাশিয়ার নাগরিত্ব পেতেন। এবং তিনি রাশিয়ায় স্থায়ীভাবে থাকতে পারতেন। আর নাগরিক হিসেবে তাকে দেশত্যাগ করতে রাশিয়ার অনুমতি নিতে হতো।

তিনি বলেন, চ্যাপম্যানের সাথে সম্পৃক্ততার ব্যাপারে স্নোডেন সতর্ক ছিলেন।

কেজিবির ঊর্ধ্বতন এক এজেন্টের মেয়ে হচ্ছেন চ্যাপম্যান। রাশিয়ার হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ২০১০ সালে ৯ জন সহযোগীসহ মার্কিন কর্তৃপক্ষের হাতে বন্দি হন তিনি। পরে বন্দি গুপ্তচর বিনিময়ের মাধ্যমে ওই বছরই রাশিয়ায় ফিরে আসেন চ্যাপম্যান।

২০০২ সালে চ্যাপম্যান আলেক্স চ্যাপম্যান নামের এক ব্রিটিশকে বিয়ে করে লন্ডনে পাড়ি জমান। কিন্তু বিয়ের চার বছর পর তাদের বিচ্ছেদ হয়। এরপর তিনি মস্কোতে ফিরে আসেন। সেখানে চ্যাপম্যান টিভি উপস্থাপক, মডেল ও একটি ফ্যাশন ব্র্যান্ডের মালিক হিসেবে পরিচিতি গড়েন।

প্রসঙ্গত, স্নোডেন ২০১৩ সালে আগস্টে মস্কোতে রাজনৈতিক আশ্রয় গ্রহণ করেন। যুক্তরাষ্ট্র থেকে পালানোর আগে তিনি হাওয়াইয়ে দীর্ঘ সময়ের সাথী লিন্ডসে মাইলসকে ছেড়ে যান। মাইলস রাশিয়াতে এসে একবার স্নোডেনের দেখাও করেন।

আপাতত ৩ বছর রাশিয়ায় অবস্থানের অনুমতি পেয়েছেন স্নোডেন। ইন্টারনেট নজরদারি কর্মসূচির তথ্য ফাঁস করার অভিযোগ তিনি মার্কিনের মোস্ট ওয়ান্টেড তালিকার শীর্ষে রয়েছেন।

তথ্যসূত্র: ডেইলি মেইল

এস রহমান/