পাচারের সময় কচ্ছপ আটক, ঝুঁকিতে বাঘ

0
134
tiger
সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার।

বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলা যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে পাচারের সময় গতকাল রোববার বিকেলে বিভিন্ন প্রজাতির ২২০টি কচ্ছপ আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা।

tiger2
সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার।

বিজিবি কর্মকর্তারা বলেন, ভারত থেকে কচ্ছপের চালানটি এপারে আসছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি সদস্যরা পাচারকারীদের আটকের জন্য প্রস্তুতি নেয়। নিরাপত্তা বাহিনীর অবস্থান জানার পর কয়েকটি বস্তা ফেলে পালিয়ে গেছে চোরাকারবারীরা। বস্তার ভেতর থেকে বিভিন্ন প্রজাতির কচ্ছপগুলো উদ্ধার করা হয়।

এমন প্রেক্ষাপটে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর বিভিন্ন বন্যপ্রাণী পাচার হচ্ছে। এর মধ্যে পাচারের সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে সুন্দরবনের বাঘ।

প্রাণীবিজ্ঞানীদের মতে, সুন্দরবনের বাঘ সবসময় পাচারের ঝুঁকিতে ছিল। এখন এর প্রকোপ আরও বেড়েছে। বিশ্বে বাঘের চামড়াসহ শরীরের বিভিন্ন অংশের ব্যাপক চাহিদার কারণে চোরাকারবারীদের নজর এখন বাঘের দিকে। এছাড়া বিভিন্ন পাখি, পশুর চামরা ও গুইসাপের চামরা পাচার হচ্ছে।

ওয়াইল্ড লাইফ ট্রাস্ট, বাংলাদেশের সদস্য ও প্রাণীবিজ্ঞানী ড. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন ভারতের কঠোর আইনকে ফাঁকি দিয়ে সরাসরি ভারত থেকে প্রাণী পাচার করা খুব কঠিন। তাই পাচারের জন্য ভারতীয় পাচারকারীরা বাংলাদেশকে রুট হিসেবে ব্যবহার করছে।

তিনি বলেন, দক্ষিণ পূ্র্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে কচ্ছপের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের কাছে কচ্ছপ খুব প্রিয় খাবার।

আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ থেকে বৈধ পথে কাকড়া বা চিংড়ি রপ্তানি করা হয়। পাচারকারীরা অবৈধভাবে বন্যপ্রাণী পাচারের জন্য এর সুবিধা নিচ্ছে।

সূত্র: বিবিসি

এমই/