‘মৃত’ যুবকের ফোন

0
87
phone-call
ছবি সংগৃহীত
phone-call
ছবি সংগৃহীত

গত সপ্তাহেই নিখোঁজ হয়েছিলেন অনিল নামে ২৫ বছরের এক যুবক। সবাই জানতে পেরেছিল, সে মারা গেছে। পুলিশও মৃতের লাশ তার মা-বাবার কাছে হস্তান্তর করেছিল।

কিন্তু শেষ কৃত্য সম্পন্ন হওয়ার আগ মূহুর্তেই এক ফোনে অনিলের কণ্ঠে ভেসে আসে সে বেঁচে আছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের তেলেঙ্গানায়।

রোববার ভারতের সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়াটুডে জানিয়েছে, ছেলে নিখোঁজের পর থানায় মামলা করে তার মা-বাবা। শুরু হয় খোজাঁখুজি। কিন্তু তাকে কোথাও পাওয়া যাচ্ছিল না।

শেষমেষ মর্গ থেকে একটি অজ্ঞাত লাশ এনে তার মা-বাবার কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ। তারাও ওই লাশকে ছেলের লাশ হিসেবে গ্রহণ করে। পুলিশ জানায় অনিল ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেছে।

প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়, এদিন অনিলকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে তার বাড়িতে শত শত মানুষ হাজির হয়। শুরু হয় ওই অজ্ঞাত লাশের শেষ কৃত্যের কাজ। অনিলের বন্ধু সুরেশও আসে সেখানে।

এরপর লাশ নিয়ে কিছু দূর যেতে না যেতেই তার কাছে ফোন আসে বন্ধু অনিলের। মূহুর্তেই ওই লাশ ফেলে অনিলের মা-বাবার কাছে ঘটনা বর্ণনা করে সুরেশ। এরপর তারা অনিল জীবিত ফিরে পায়।

অনিল জানায়, সে বারাঙ্গলে আছে; এখন বাড়ি ফিরে আসছে। ওই যুবকের বাবা জানায়, অনিল সুরেশকে বলেছে, কিছু ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সমস্যার কারণে সে বাড়ি ছেড়েছিল।

তিনি আরও জানান, ওই লাশকে পুলিশের কাছে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

এস রহমান/