বঙ্গোপসাগরে অবৈধ সমুদ্রযাত্রা বেড়েছে

0
87
_bd_boat_
জাতিসংঘের প্রতিবেদন বলছে, বঙ্গোপসাগর দিয়ে অবৈধ সমুদ্রযাত্রা আগের চেয়ে বেড়েছে । ছবি-বিবিসি (সংগৃহীত)
_bd_boat_
জাতিসংঘের প্রতিবেদন বলছে, বঙ্গোপসাগর দিয়ে অবৈধ সমুদ্রযাত্রা আগের চেয়ে বেড়েছে । ছবি-বিবিসি (সংগৃহীত)

বঙ্গোপসাগর দিয়ে অবৈধ সমুদ্রযাত্রা আগের চেয়ে বেড়েছে বলে জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ বছর প্রায় ৫৩ হাজার বাংলাদেশি এবং রোহিঙ্গা অবৈধভাবে মালয়েশিয়া এবং থাইল্যান্ডের উদ্দেশ্যে সমুদ্র পাড়ি দিয়েছেন।

প্রতিবেদনটি বলছে, এদের মধ্যে গত ৩ মাসের মধ্যেই প্রায় ২১ হাজার মানুষ সমুদ্র পাড়ি দেয়।

শুক্রবার জেনেভা থেকে প্রকাশিত ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সমুদ্রপথে এ ধরণের পাচারের সংখ্যা আগের তুলনায় বেড়েছে। গত বছরের তুলনায় বঙ্গোপসাগর দিয়ে এমন অবৈধ সমু্দ্রযাত্রার সংখ্যা ৩৭ শতাংশ বেশি।

যাত্রাপথে পাচারকারীদের নির্যাতন এবং পর্যাপ্ত খাদ্য বা পানির অভাবের কারণে প্রায় ৫৪০ জন মারা গেছে। তাদের মরদেহগুলো নৌকা থেকে সমুদ্রে ফেলে দেওয়া হয় বলেও প্রতিবেদনে জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাচার হওয়া এসব মানুষদের মধ্যে প্রায় ১০ শতাংশ নারী এবং ইউএনএইচসিআর থাইল্যান্ডে যাদের সাথে সাক্ষাৎ করেছে, তাদের এক-তৃতীয়াংশের বয়সই ১৮ বছরের নিচে।

এদের অনেকেই দালালদের স্বেচ্ছায় অর্থ প্রদান করে সমুদ্রপাড়ি দিলেও অনেকেই বলেছেন, তাদের জোরপূর্বক নৌযাত্রায় বাধ্য করা হয়েছে।

থাইল্যান্ডে পৌঁছানোর পর পাচারকারীরা অনেককে বন্দীশিবিরে আটকে রেখে আত্মীয়-স্বজনের কাছে মুক্তিপণ দাবি করেছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। মুক্তিপণ দিতে ব্যর্থ হলেতাদেরকে মারধরসহ নানা ধরণের নির্যাতন করা হয়।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

এএসএ/